পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক সংক্রমণ ৪ হাজারের নীচে, আরও ১১ হাজার সক্রিয় রোগীর পতন

0

কলকাতা: বুধবার সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে অনেক কম নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গে। তার জেরে বৃহস্পতিবার রাজ্যের দৈনিক সংক্রমণ অনেকটাই কমে গেল। তবে কম টেস্টের প্রভাবে কিছুটা বাড়ল সংক্রমণের হার।

যদিও এ দিনও প্রচুর সংখ্যক মানুষ সুস্থ হয়েছেন। এর জেরে আরও ১১ হাজার সক্রিয় রোগী পড়ে গিয়েছে রাজ্যে। সব মিলিয়ে রাজ্যে করোনা পরিস্থিতির আরও উন্নতি হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি

স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬০৮ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ লক্ষ ৮২ হাজার ৮৬২।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ২১৬ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯ লক্ষ ৬ হাজার ৬৫৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন মোট ২০ হাজার ৪৮১ জন। রাজ্যে মৃত্যুহার রয়েছে ১.০৩ শতাংশে। ডিসেম্বরের শেষে রাজ্যে মৃত্যুহার ছিল ১.২১ শতাংশ।

রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৫৫ হাজার ৭২৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ৬৪৪ জন সক্রিয় রোগী কমেছে রাজ্যে। রাজ্যে সুস্থতার হার রয়েছে ৯৬.১৬ শতাংশ।

দৈনিক সংক্রমণের হার বাড়ল

সংক্রমণের দাপট কতটা রয়েছে সেটা ভালো করে বুঝতে গেলে দৈনিক সংক্রমণের হারের দিকে তাকাতে হয়। প্রতি ১০০ টেস্টে কত জনের রিপোর্ট পজিটিভ হচ্ছে, সেটাকেই সংক্রমণের হার বলে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সংক্রমণের হার সামান্য একটু বেড়েছে। তবে কম নমুনা পরীক্ষা হলে সাধারণ ভাবেই সংক্রমণের হার অন্য দিনের তুলনায় বাড়ে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪০ হাজার ১৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ফলত, এ দিন সংক্রমণের হার ছিল ৯.০২ শতাংশ।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণার পরিস্থিতি

নমুমা পরীক্ষা কমার ফলে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণার দৈনিক সংক্রমণ আরও বেশ কিছুটা কমে গিয়েছে। কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪২৩ জন, উত্তর ২৪ পরগণায় ৫২৪ জন। এই দুই জেলায় সুস্থ হয়েছেন যথাক্রমে ৩ হাজার ৬৩৭ এবং ২ হাজার ৫৭৭ জন। কলকাতায় ৮ আর উত্তর ২৪ পরগণায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কলকাতায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৭২৯, উত্তর ২৪ পরগণায় মোট আক্রান্ত ৩ লক্ষ ৯৮ হাজার ৫১২। কলকাতায় বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১২ হাজার ৮৮২ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ৯ হাজার ৩৪৩ জন। দুই জেলায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ৫৫০০ এবং ৫১৯৩ জনের।

রাজ্যের বাকি জেলার চিত্র

গত ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গের বাকি ২১টি জেলায় সংক্রমণ এবং আগের দিনের তুলনায় কতটা বাড়ল বা কমল, দেখে নিন।

১) আলিপুরদুয়ার

নতুন করে আক্রান্ত -৯১

সুস্থ হলেন –১৫২

২) কোচবিহার

নতুন করে আক্রান্ত –১৫১

সুস্থ হলেন –২১৫

৩) দার্জিলিং

নতুন করে আক্রান্ত –১০৪

সুস্থ হলেন –৫২৯

৪) কালিম্পং

নতুন করে আক্রান্ত –১৩

সুস্থ হলেন –৬৯

৫) জলপাইগুড়ি

নতুন করে আক্রান্ত –১৭১

সুস্থ হলেন –৩৫৫

৬) উত্তর দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত -১০০

সুস্থ হলেন -২৭০

৭) দক্ষিণ দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত -১০৯

সুস্থ হলেন –২৩৫

৮) মালদহ

নতুন করে আক্রান্ত -৫৮

সুস্থ হলেন –৫৩০

৯) মুর্শিদাবাদ

নতুন করে আক্রান্ত -৮৩

সুস্থ হলেন –৩৩৯

১০) নদিয়া

নতুন করে আক্রান্ত -২৩২

সুস্থ হলেন -৫৭১

১১) বীরভূম

নতুন করে আক্রান্ত –১৮২

সুস্থ হলেন –৭৩৪

১২) পশ্চিম বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত –১০০

সুস্থ হলেন –৬১০

১৩) পূর্ব বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত-১৫০

সুস্থ হলেন –৫৮৭

১৪) বাঁকুড়া

নতুন করে আক্রান্ত -১২৮

সুস্থ হলেন –৩৪৮

১৫) পুরুলিয়া

নতুন করে আক্রান্ত -৭৩

সুস্থ হলেন –২১৪

১৬) পূর্ব মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত -৫০

সুস্থ হলেন -১৮২

১৭) পশ্চিম মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত–১৩১

সুস্থ হলেন –৩৬২

১৮) ঝাড়গ্রাম

নতুন করে আক্রান্ত -৬৯

সুস্থ হলেন- ১৪৯

১৯) দক্ষিণ ২৪ পরগণা

নতুন করে আক্রান্ত –৪১১

সুস্থ হলেন –১,০১৯

২০) হুগলি

নতুন করে আক্রান্ত –১৩৩

সুস্থ হলেন -৭৩৯

২১) হাওড়া

নতুন করে আক্রান্ত –১২২

সুস্থ হলেন –৭৯১

উল্লিখিত জেলাগুলির মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু রেকর্ড করেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা (৪), নদিয়া (৩), উত্তর দিনাজপুর (২), আলিপুরদুয়ার (১), জলপাইগুড়ি (১), দক্ষিণ দিনাজপুর (১), বাঁকুড়া (১),

আরও পড়তে পারেন:

কমছে সংক্রমণ, বিধিনিষেধ অনেকটাই শিথিল করল দিল্লি

অরুণাচলপ্রদেশ থেকে ‘নিখোঁজ’ ভারতীয় কিশোরকে ফেরাল চিন

নিয়মিত বাজারে পাওয়া যাবে কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাক্সিন, মিলল অনুমোদন

মাথা মুড়িয়ে, মুখে কালি লেপে গণধর্ষিতাকে নিয়ে উল্লাস দিল্লির রাস্তায়, গ্রেফতার ৪

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন