কলকাতা: গোরু পাচার মামলায় বৃহস্পতিবার সিবিআই-এর হাতে গ্রেফতার হন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তার একদিন আগেই তাঁর বাড়িতে চিকিৎসা করতে আসেন বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী। পরামর্শ হিসেবে বেড রেস্ট লিখে দেন তিনি। পরে বিতর্কের মুখে পড়ে স্বীকার করেন সুপারের নির্দেশেই তিনি তৃণমূল নেতার বাড়িতে যান। সূত্রের খবর, কার নির্দেশে অনুব্রতর বাড়িতে সুপার চিকিৎসক পাঠিয়েছিলেন, তা জানতেই তাঁকেও জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

কী বলছেন সুপার?

শনিবার সকালে সংবাদ মাধ্যমের কাছে বুদ্ধদেব মুর্মু অবশ্য বলেন, “বুধবার বিকাশ রায়চৌধুরীর কাছ থেকে আমি ফোন পেয়েছিলাম। তিনি আমাকে বলেছিলেন যে যেহেতু অনুব্রত মণ্ডল অসুস্থ, আমাকে তাঁর বাড়িতে একজন ডাক্তার পাঠাতে হবে। মণ্ডল জেলার একজন ভিআইপি, যিনি ‘জেড’ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পান। যেহেতু তিনি সেই সময় ডিউটিতে ছিলেন না, তাই আমি চন্দ্রনাথ অধিকারীকে বলেছিলাম অনুব্রতর বাড়িতে যেতে”।

কী বলেছিলেন চিকিৎসক চন্দ্রনাথ?

চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী দাবি করেছিলেন, “আমি একজন জেনারেল সার্জন ও একজন সরকারি কর্মচারী। আমি আমার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সুপারিনটেনডেন্টের নির্দেশ মানতে বাধ্য। ফলে আমাকে সুপার যা বলেছেন আমি সেই কাজ করেছি। আমি সুপারকে বলেছিলাম, ওঁকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে। কিন্তু উনি বলেছিলেন হাসপাতালে আনার দরকার নেই। বাড়িতে যান। প্রয়োজনে সাদা কাগজে প্রেসক্রিপসন লিখবেন”।

কেন সিবিআইয়ের নজরে সুপার?

১০ বার অনুব্রতকে নোটিশ পাঠায় সিবিআই। কিন্তু মাত্র এক বারই তিনি নিজাম প্যালেসে এসে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হন। প্রত্যেক বারই শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে তিনি হাজিরা এড়ান। শেষ বারও এসএসকেএম হাসপাতাল থেকে ফেরত অনুব্রত ওই চিকিৎসককে দিয়ে বেড রেস্ট লিখিয়ে নেন বলে দাবি। এই ঘটনায় নাম জড়িয়েছে বোলপুর হাসপাতালের সুপার বুদ্ধদেবের। তিনি নিজেও স্বীকার করেছেন, তাঁর উপরেও চাপ ছিল। কার চাপ, কী চাপ, সে সবই জানতে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। যা তদন্তকে এগিয়ে নিয়ে সহায়ক বলেই মনে করছেন তদন্তকারীকে। তবে এখনও পর্যন্ত সরাসরি সিবিআই-এর তরফে এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

আরও পড়তে পারেন: 

ফের কোভিড আক্রান্ত সোনিয়া গান্ধী, গত তিনমাসে এই নিয়ে দ্বিতীয় বার

এক দেশ এক প্রবেশিকা: নিট, জয়েন্ট এন্ট্রাস পরীক্ষাকে এক ছাতার তলায় আনার পরিকল্পনা ইউজিসি-র

কুড়ি সেকেন্ডে ১০-১৫ বার কোপানো হয়েছে, বর্তমানে ভেন্টিলেটরে সলমন রুশদি

মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি, ৭ সেপ্টেম্বর নবান্ন অভিযান বিজেপি-র

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন