কলকাতা: অনুব্রত মণ্ডলের পাশে থাকবে কি তৃণমূল? বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানালেন, “মানুষকে ঠকালে দল কোনো ভাবেই কাউকে সমর্থন করবে না”।

বৃহস্পতিবার বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করে সিবিআই আদালতে পেশ করার সঙ্গে সঙ্গেই দলের অবস্থান স্পষ্ট করে দিল তৃণমূল। সাংবাদিক বৈঠক করেন চন্দ্রিমা ও প্রাক্তন বিধায়ক সমীর চক্রবর্তী। অনুব্রত প্রসঙ্গে সরাসরি কোনো মন্তব্য না করলেও চন্দ্রিমা বলেন, “আমাদের দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং আমাদের দলের সর্বোচ্চ নেত্রী পরিষ্কার করে বলে দিয়েছেন, মানুষের পক্ষে যা কিছু ক্ষতিকর, যদি মানুষের কোনো ক্ষতি করে থাকে, সেখানে দল কখনও তার কাজকে সমর্থন করে না। এ ধরনের কাজ কেউ করে থাকলে, দল ওই ব্যক্তিকেও সমর্থন করে না। আমাদের দলীয় নেতৃত্ব এর আগেও এটা স্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন”।

তিনি আরও বলেন, “মানুষের সমর্থন নিয়েই ১৯৯৮ সালে এই দল তৈরি হয়েছে। মানুষের আস্থা অর্জন করেই তিন বার সরকার এসেছে। আমাদের দলের নেত্রী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। ফলে মানুষই আমাদের দলের সম্পদ, কোনো অর্থনৈতিক সম্পত্তিকে আমরা সম্পদ বলে মনে করি না”।

এর পরও তিনি বলেন, “আমরা একটা নিরপেক্ষ চেহারা আশা করি। সংস্থাগুলি নিরপেক্ষ চেহারা হারাচ্ছে। তাদের নিরপেক্ষ হওয়া দরকার। ইডি বা সিবিআই বলুন, কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্ত সংস্থাগুলি নিজেদের নিরপেক্ষ চেহারাটা হারিয়ে ফেলছে। কেন্দ্রের শাসক দলের সঙ্গে থাকলে ছাড় পেয়ে যাচ্ছেন নেতারা। আমাদের ক্ষেত্রে ছোট ছোট অভিযোগেও ঝাঁপিয়ে পড়ছে কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলি। এর প্রতিবাদে শুক্রবার ও শনিবার দলের ছাত্র ও যুব সংগঠন জেলায় জেলায় বিক্ষোভ দেখাবে”।

আরও পড়তে পারেন: 

ভোটপ্রচারে ‘বিনামূল্যে’র প্রতিশ্রুতি আর জনকল্যাণ প্রকল্প এক নয়: সুপ্রিম কোর্ট

২ সপ্তাহ পর আস্থাভোট চান নীতীশ-তেজস্বীরা, কী কারণে

দেশাত্মবোধক গান গেয়ে ‘বিশ্ব রেকর্ড’! জোর প্রস্তুতি রাজস্থানের এক কোটি স্কুল পড়ুয়ার

কয়লা পাচারকাণ্ডে এ বার রাজ্যের ৮ আইপিএস-কে তলব, দিল্লিতে ডেকে পাঠাল ইডি

১৪তম উপরাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নিলেন জগদীপ ধনকর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন