মির্জাকে নিয়ে মুকুল রায়ের ফ্ল্যাটে সিবিআই

0
Mirza and Mukul
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: নারদকাণ্ডের তদন্তে এ বার বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের ফ্ল্যাটে পৌঁছাল সিবিআই। রবিবার নারদকাণ্ডে গ্রেফতার পুলিশকর্তা এস এম এইচ মির্জাকে সঙ্গে নিয়ে তদন্তকারীরা মুকুলের এলগিন রোডের ফ্ল্যাটে পৌঁছান।

সিবিআই সূত্রে খবর, ঘটনার পুনর্নির্মাণ করতে মুকুল রায়ের ফ্ল্যাটে ভিডিওগ্রাফি করল সিবিআই।

বিপুল অঙ্কের টাকা মুকুল রায়কে দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করেছেন এস এম এইচ মির্জা। তাঁর দাবি, মুকুলের এই ফ্ল্যাটে গিয়েই তিনি টাকা দিয়েছিলেন। সেই ঘটনাক্রমেরই ভিডিও করা হয় এ দিন। উপস্থিত ছিলেন মুকুল রায়ও।

সিবিআই সূত্রে খবর, ফ্ল্যাটের যেখানে বসে টাকা বিনিময়ের কথা দাবি করেছেন মির্জা। সেখানেই মুকুলের সামনে তাঁকে বসিয়ে ভিডিও করা হয়। প্রায় ঘণ্টাখানেক সময় ধরে চলে এই ভিডিওগ্রাফি।

তবে ঠিক কত টাকা তিনি মুকুলকে দিয়েছিলেন সে সম্বন্ধে সিবিআই নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেয়নি। বলা হয়েছে, মির্জার দাবি তিনি বিপুল অঙ্কের টাকা দিয়েছিলেন। যদিও অন্য একটি সূত্রের খবর, মুকুলের ফ্ল্যাটে গিয়ে মির্জা তাঁকে ১ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন।

সিবিআইয়ের ভিডিওগ্রাফি সম্পর্কে মুকুল দাবি করেন, “আমি কোনো টাকা নিইনি। আমি যে টাকা নিয়েছি, তেমন কোনো ভিডিও-ছবি নেই। আমার ফ্ল্যাটে বসে কোনো টাকার লেনদেন হয়নি। আসলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে ফাঁসাতে চাইছেন। তিনি চাইছেন যে কোনো ভাবে হোক আমাকে ফাঁসিয়ে দিতে”।

অন্য দিকে সাংবাদিকদের প্রশ্নে মির্জা জানান, তিনি সিবিআইয়ের তদন্তে সাহায্য করছেন। ঘটনার পুনর্নির্মাণ করতে তাঁকে এখানে নিয়ে আসা হয়েছে। বাকি সমস্ত প্রশ্নের উত্তর সিবিআই দিতে পারবে।

উল্লেখ্য, গত শনিবারেও দু’জনকে মুখোমুখি বসিয়ে বেশ কয়েক ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.