বোলপুর : শান্তিনিকেতনে কোনো দিনই কোনো মূর্তি পুজোর প্রচলন ছিল না। আজও নেই। রবীন্দ্রনাথ প্রতিটি পুজোপার্বনকে মাথা রেখেই উৎসবের সূচনা করেছিলেন। তেমনই বিশ্বকর্মা পুজোকে নিয়েও একটা উৎসবের প্রচলন আছে এখানে।

এই পুজোকে এখানে শিল্প উৎসব হিসেবে পালন করা হয়। ১৯২৬ সালে রবীন্দ্রনাথ এই উৎসবের সূচনা করেছিলেন। এই উৎসবে রবীন্দ্র সংগীতের মাধ্যমে পুজো করা হয় শিল্প সামগ্রীর। ‘কঠিন লোহা কঠিন ঘুমে ছিল অচেতন, তার ঘুম ভাঙাইলো কে? পোষ মেনেছে হাতির দলে, যা বলাই সে তেমনি বলে’। বিশ্বকর্মাকে স্মরণ করে একটি গানও রচনা করেছিলেন তিনি। সেই প্রথা আজও তা বহন করে আসছে শ্রীনিকেতন।

এ দিন শিল্প উৎসবের সূচনা করেন অধ্যাপক ফাল্গুনী গুপ্ত (অধিকর্তা, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব টেকনিক্যাল টিচারস ট্রেনিং এডুকেশন ও রিসার্চ) ও বিশ্বভারতীর উপাচার্য অধ্যাপক স্বপন দত্ত। এই অনুষ্ঠানে এক জন শিল্পীকে সংবর্ধনাও দেওয়া হয়। তা ছাড়া শ্রীনিকেতনে শিল্প সদনের পড়ুয়াদের হাতে তৈরি জিনিসপত্রের প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন