সিএএ নিয়ে ফের অস্বস্তি বাড়িয়ে দলকে বিশেষ পরামর্শ বিজেপি নেতা চন্দ্র বসুর

0

ওয়েবডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে মুসলিমদেরও স্থান দেওয়ার দাবি তুলে কিছু দিন আগেই দলের অস্বস্তি বাড়িয়েছেন রাজ্য বিজেপির সহসভাপতি চন্দ্রকুমার বসু। এই ব্যাপারে নিজের আগের অবস্থানেই দাঁড়িয়ে এই বিষয়ে দলকে বিশেষ পরামর্শও দিলেন চন্দ্রবাবু।

সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে চন্দ্রবাবু জানান, গণতান্ত্রিক দেশের মানুষের ওপরে জোর খাটিয়ে কোনো আইনকে চাপিয়ে দেওয়া যায় না। তিনি বলেন, “একটা বিল যখন আইনে রূপান্তরিত হয়ে গিয়েছে, তখন প্রত্যেক রাজ্য তা মানতে বাধ্য। কিন্তু আমাদের মতো গণতান্ত্রিক দেশে তা কোনো ভাবেই মানুষের ওপরে চাপিয়ে দেওয়া যায় না।”

সিএএ নিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের উদ্দেশে তাঁর পরামর্শ, “আমি দলকে আগেও বলেছি যে এই আইনে একটু পরিবর্তন করলেই বিরোধীদের যাবতীয় প্রচারকে ভোঁতা দেওয়া সম্ভব। আমাদের বলা উচিত যে এই আইন শুধুমাত্র বিভিন্ন দেশে অত্যাচারিত হওয়া সংখ্যালঘুদের জন্য। কোনো ধর্মের কথা এখানে উল্লেখ করাই উচিত নয়।”

উল্লেখ্য, গত মাসে একাধিক টুইটের মধ্যে দিয়ে সিএএ নিজের মতামত প্রকাশ করেন চন্দ্রবাবু। সেখানে তিনি বলেন, পাকিস্তান আর আফগানিস্তানের আহ্বাদিয়া এবং বালুচররা মুসলিম হলেও সংখ্যালঘু হওয়ার ফলে অত্যাচারিত। তাদেরও কথাও এই আইনে উল্লেখ করা উচিত ছিল।

আরও পড়ুন ব্ল্যাক প্যান্থারের পর বক্সায় উদ্ধার আরও এক বন্যজন্তু, পাঠানো হল শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারিতে

দলের নেতারা যে ভাবে বিরোধীদের আক্রমণ করেন, তাও অনুচিত বলেই মনে করেন চন্দ্রবাবু। এই প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, “সিএএ নিয়ে যারা বিরোধিতা করছে তাদের আক্রমণ করা উচিত নয়। আমাদের কাছে সংখ্যা রয়েছে মানেই আমরা যা খুশি তাই করতে পারি না।”

সিএএ নিয়ে কাউকে আক্রমণ না করে বরং মানুষের কাছে গিয়ে তা ভালো ভাবে বোঝানোরই পরামর্শ দেন চন্দ্রবাবু।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.