chief minister's administrative meeting in uttarkanya

নিজস্ব সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি: খরচ কমিয়ে সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার শিলিগুড়ির উত্তরকন্যায় জলপাইগুড়ি জেলার প্রসাশনিক আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন তিনি। সেই বৈঠকেই সরকারি আধিকারিকদের ব্যয় সংকোচনের নির্দেশ দেন। সেই সঙ্গে উন্নয়নের কাজ যাতে দ্রুত শেষ করা যায় সে দিকটাও দেখতে বলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী চার দিনের উত্তরবঙ্গ সফরে এ দিনই শিলিগুড়ি পৌঁছোন।

এ দিন বৈঠক শুরুর আগে রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে মাল ব্লকের ব্লাড ব্যাংক, ওদলাবাড়িতে ৩০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ও ডাবগ্রামে নতুন দমকল কেন্দ্রের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। জলপাইগুড়ি জেলায় ১০০ দিনের কাজের হার ভালো হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। জলপাইগুড়িতে বাঁশ, মাশরুম ও রেশম চাষে জোর দেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। এ ছাড়াও গজলডোবা মেগা টুরিজম প্রকল্পের কাজ যাতে দ্রুত শেষ করা হয় তার জন্য পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবকে কড়া ভাষায় নির্দেশ দেন।

এ দিনের বৈঠক মূলত জলপাইগুড়ি জেলার প্রসাশনিক আধিকারিকদের নিয়ে হলেও, মুখ্যমন্ত্রী শিলিগুড়ির পুলিশি ব্যবস্থা নিয়েও আলোচনা করেন। শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের এলাকা যাতে বাড়ানো হয় তার জন্য এই বৈঠক থেকেই রাজ্য পুলিশের ডিজিকে নির্দেশ দেন। সেই সঙ্গে সরকারি আধিকারিকদের গাড়ি ও পুলিশের গাড়িতে সরকারি প্রকল্প ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ নিয়ে প্রচার চালানোর নির্দেশ দেন।

উত্তরবঙ্গে পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব ও উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের সম্পর্ক নিয়ে বেশ কয়েক বার বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে। তাই এ দিনের বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী গৌতম দেবকে নির্দেশ দেন, তিনি যেন রবি ঘোষকে সঙ্গে নিয়ে সরকারি প্রকল্পের সূচনা-অনুষ্ঠানে যান। রাজনৈতিক কারবারিদের মতে, মুখ্যমন্ত্রী এই নির্দেশের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিলেন কোনো অন্তর্দন্দ নয়, উন্নয়নের কাজ করতে হবে মিলে মিশে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here