পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রথম সফরে কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী

0
2640

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান:বর্ধমানে এসে কল্পতরু হলেন মুখ্যমন্ত্রী । প্রথমে পুলিশ লাইন মাঠের জনসভা থেকে একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করেন । তারপর বর্ধমানের সংস্কৃতি লোকমঞ্চে জেলার বিভিন্ন স্তরের জনগণ ও প্রশাসনিক লোকজনদের নিয়ে প্রশাসনিক সভায় বসেন তিনি। বিভিন্ন স্তরের অভাব অভিযোগ শোনেন ও সঙ্গে সঙ্গে তা সমাধানের নির্দেশও দেন। এক কথায় বলা যায় পূর্ব বর্ধমান জেলা ভাগ হবার পর এই প্রথম বৈঠকে আসলেন তিনি। উদার হস্তে সকলের ইচ্ছায় পুরণ করার চেষ্টাও করলেন ।

বিশেষ করে এদিন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের কাছে আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপের জিনের ভুমিকা পালন করলেন। সভা চলাকালীন বিভিন্ন মহলের মতামত ও দাবিদাওয়া শোনার পর তিনি নিজেও উদগ্রীব ছিলেন ছাত্রছাত্রীদের মতামত শোনার জন্ । সায়নি রায় নামে এক ছাত্রীর আবেদনে কন্যাশ্রী প্রকল্পের তৃতীয় পর্যায় চালুর কথা ঘোষণা করলেন। প্রসঙ্গত, ছাত্রীর আবেদন ছিল কলেজের পরবর্তী স্তরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের জন্যও যেন কন্যাশ্রী প্রকল্পের মতো প্রকল্প চালু করা হয়। তাঁর ব্যাখ্যা, সম্প্রতি বিশ্বের দরবারে কন্যাশ্রী প্রকল্প বাংলার নাম উজ্জ্বল করেছে। কিন্তু কলেজ শেষ করার পর ছাত্রীরা যাতে নিজেকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে তার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় স্তরে অর্থাৎ স্নাতকোত্তর পর্যায়ে সরকারি সাহায্য পাওয়া প্রয়োজন। তার উত্তরেই মুখ্যমন্ত্রী সভা মঞ্চ থেকে কে থ্রি  প্রকল্প চালু করার কথা বলেন। এনিয়ে তিনি রাজ্যের শিক্ষা সচিবকে রাজ্যের স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ প্রজেক্ট থেকেই এই প্রকল্প চালু করার কথা বলেন।

পাশাপাশি  বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের অনুরোধেই জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন প্রকল্পের প্রচার ও কাজে সাহায্যেরে জন্য ছাত্র ছাত্রীদের ইন্টার্নশিপ চালু করার কথা বলেন।

এছাড়া নেট উত্তীর্ণ দের স্কলারশিপ দেওয়া ও স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ যোজনা থেকে প্রাপকদের মান ৫৫ শতাংশ নম্বর থেকে কমিয়ে ৫৩% করার অনুরোধ সঙ্গে সঙ্গেই মেনে নেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের যাতায়াতের  অসুবিধার কথা জানালে বাসের ব্যবস্থা করে দেবারও কথা বলেন তিনি ।

এদিন তিনি পুর্ব বর্ধমান জেলা থেকে নতুন করে ২৮ টি প্রকল্পের শিল্যানাস করেন।

পাশাপাশি এদিন দুর্নীতি রুখতে পাথর ও বালি খাদানে ওয়াচ টাওয়ার বসানোর কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here