purulia

পুরুলিয়া: গত ৩০ মে জেলার বলরামপুরে বিজেপি কর্মী ত্রিলোচন মাহাতোর দেহ উদ্ধার হয়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ ঘটনাটিকে ‘আত্মহত্যা’ বলে উল্লেখ করলেও পরবর্তীতে সিআইডি তদন্তে তা মোড় নেয় অন্য পথে। এত দিন পর্যন্ত ত্রিলোচন মাহাত মৃত্যু তদন্তে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। সূত্রের খবর, ধৃতদের জেরা করে ওই ঘটনায় স্থানীয় তৃণমূল নেতার ছেলেকে গ্রেফতার করায় ধৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন।

জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাধিপতি সৃষ্টিধর মাহাতোর ছেলে সন্দীপ মাহাতোকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। ত্রিলোচন হত্যায় তাঁর কী ভূমিকা রয়েছে, সে বিষয়ে যাবতীয় তদন্ত চালাচ্ছে সিআইডি।

উল্লেখ্য, জেলার বলরামপুর থানার সুপুরডি গ্রামে ৩০ মে সকালে এক যুবকের মৃতদেহ দেখতে পান এলাকায় মানুষ। চাঞ্চল্য ছড়ায় । মৃতদেহের পরনের কাপড়ে লেখা ছিল, “বিজেপি করার জন্য হত্যা করা হল।” পরে পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ওই যুবকের নাম ত্রিলোচন মাহাতো (২১), তিনি সুপুরডি গ্রামেরই বাসিন্দা ছিলেন। পুরুলিয়ার বিজেপি জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর দাবি করেছিলেন, “ত্রিলোচন বিজেপির একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন ও বিজেপি করতেন বলে দুষ্কৃতীরা তাঁকে হত্যা করেছে। আমরা তাঁর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে চাই”।

এর পর শুরু হয় রাজনৈতিক চাপান-উতোর। তদন্তের ভার যায় সিআইডির উপর।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন