ওয়েবডেস্ক: গত ৪ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে প্রকাশ্যে এসে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ।

এর কয়েক দিনের মধ্যেই তাঁকে নতুন করে বিপাকে ফেলল দাসপুর সোনা পাচার কাণ্ডের রহস্য সন্ধানে নিযুক্ত রাজ্য সিআইডি।

শনিবার তথ্য পাচারের অভিযোগে সিআইডি গ্রেফতার করে তাঁর অনুগামী হিসাবে পরিচিত পুলিশ আধিকারিক প্রদীপ রথকে।

প্রদীপবাবু বর্তমানে আলিপুরদুয়ারের পুলিস সুপারের দফতরে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি বেশ কিছু গোপন তথ্য ভারতীদেবীকে পাচার করেছেন।

আগে দাসপুর থানার ওসি ছিলেন প্রদীপবাবু। এর আগেই তিনি এক বার গ্রেফতার হন। জামিনও পান। সিআইডির দাবি, আলিপুরদুয়ারের পুলিস সুপারের দফতর থেকে তিনি তথ্য পাচার করেছেন।

উল্লেখ্য, নিজের বিরুদ্ধে অভিসন্ধির প্রমাণ দিতে ভারতীদেবী হাইকোর্টে কিছু কল রেকর্ড জমা করেন। সেগুলির সূত্রেই প্রদীপবাবুকে গ্রেফতার বলে জানা গিয়েছে।

সিআইডির প্রশ্ন, পুলিশ সুপারের পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর আর কোনো মতেই ওই কল রেকর্ড সংগ্রহ করা ভারতীদেবীর পক্ষে সম্ভব নয়।

এই কাজে তাঁকে সাহায্য করে থাকতে পারেন প্রদীপবাবুই। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই ফের একবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

[ আরও পড়ুন: লোকসভায় সারা দেশের ২৮৩টি আসনে প্রার্থী দিচ্ছে ন্যাশনাল উইমেন্স পার্টি ]

উল্লেখ্য, বিজেপিতে যোগ দিয়েই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তীব্র সমালোচনা করেন ভারতীদেবী। একদা তিনি মমতাকে ‘জঙ্গল মহলের মা’ বলে উল্লেখ করতেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here