রাজ্যে শিশু পাচারের ঘটনা তদন্ত করে দেখতে কমিটি গড়লেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কমিটিতে মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, ডিজিপি, পুলিশ কমিশনার, স্বাস্থ্য সচিব, নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের প্রধান সচিব ছাড়াও থাকছেন বিরোধী দলের সুজন চক্রবর্তী এবং আবদুল মান্নান। দুই বিরোধী নেতাই এই কমিটিতে থাকতে রাজি হয়েছেন। এই কমিটির চেয়ারম্যান পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। প্রতি মাসে একবার এই কমিটি বৈঠকে বসবে।

বিধানসভায় শিশু পাচার প্রসঙ্গে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এটা সামাজিক অবক্ষয়। একে রুখতেই হবে। শিশু পাচার কাণ্ডে এখনও পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৫ শিশু উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে দু’জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি ১৩ জন সুস্থ আছে। এর মধ্যে একজনকে মায়ের কাছে ফিরিয়েও দেওয়া হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, এখনও পর্যন্ত ৩টি নার্সিং হোমের লাইসেন্স সাসপেন্ড করা হয়েছে। পরে বাতিল করা হবে।

শিশুপাচার চক্র ধরতে সিআইডি-র ভূমিকার প্রশংসা করেন মখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ১৯৮২ সাল থেকে এই পাচার চক্র সক্রিয়। কিন্তু এবার সরকার ‘কঠোর ভাবে’ এর মোকাবিলা করবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here