Mamata Banerjee

কলকাতা: রাজ্যের উন্নয়নে অহেতুক খরচে রাশ টেনে ধরতে বিভিন্ন দফতরের মন্ত্রী এবং সচিবদের নিয়ে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পূর্ব নির্ধারিত এই বৈঠকে স্বাভাবিক ভাবেই মমতা নির্দেশ দেন, সরকারি টাকায় বিলাসিতা বন্ধ করে সেই টাকায় রাজ্যের উন্নয়ন হোক।

নবান্নের ওই বৈঠকে মমতা বলেন, “১২ টি দফতরকে এক সঙ্গে করে দেওয়া হয়েছে। কারণ খরচ কমাতে হবে, দেখতে হবে কোথাও যেন অহেতুক খরচ না হয়। কেন্দ্রের বিমাতৃসুলভ আচরণ সত্ত্বেও উন্নয়ন করছি। ফলে সরকারি টাকায় আর বিলাসিতা নয়”।

এ দিন বৈঠক থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদেক মুখোমুখি হয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ তোলেন মমতা। তিনি বলেন, “প্রতিমাসে ৪৬ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিতেই চলে যায়। এ ভাবেই ২ লক্ষ ২৪ হাজার কোটি টাকা ঋণ শোধ করেছি। তার উপর আমরা ঘোষণা করেছি নতুন হারে ডিএ দেওয়া হবে। রাজ্য সরকারি কর্মীদের বর্ধিত হারে ডিএ দিতে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা লাগবে। সে টাকা আসবে কোথা থেক? সেই কারণেই কেন্দ্রের বঞ্চনাকে উপেক্ষা করে খরচ কমানোয় নজর দিতে হবে”।

পাশাপাশি এ দিন মমতা দাবি করেন, “খরচ কমিয়ে যে টাকা বাঁচবে সেই টাকা মানুষের কাজে লাগবে। সেই টাকায় পানীয় জল ও রাস্তাঘাটের উন্নয়নে কাজে লাগানো হবে”।

বৃহস্পতিবারের বৈঠকের পরই অনুমান করা হচ্ছে, এ বার থেকে মন্ত্রীদের জেলা সফরে খরচ-সহ পরিবহণ খাতে ব্যয়, খাওয়া-দাওয়া, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং সাংবাদিক বৈঠকের ক্ষেত্রেও মেপে খরচ করার পরিকল্পনা আছে সংশ্লিষ্ট দফতরগুলির। কারণ এ বিষয়ে মুখ্যসচিব মলয় দে ১৫ দফা নির্দেশিকা জারি করেছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here