কলকাতা: ‘তপসিলিদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার যা করেছে, তা অন্য কোনো রাজ্যে হয়নি’, বুধবার এমনটাই দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ দিন তিনি নবান্নে তপসিলি জাতি উন্নয়ন কাউন্সিলের বৈঠকে অংশ নেন।

এ দিনই প্রথম রাজ্যে নবগঠিত তফসিলি জাতি উন্নয়ন কাউন্সিলের বৈঠক হল। সব সদস্যকে নিয়ে আলোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে নেওয়া হয় একাধিক সিদ্ধান্ত। বৈঠক শেষে তফসিলি জাতির উন্নয়নে আরও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গই একমাত্র রাজ্য যেখানে ওয়েস্ট বেঙ্গল শিডিউল কাস্ট অ্যাডভাইসরি কাউন্সিল তৈরি হয়েছে। নিম্নবর্গীয়দের মানুষের জন্য আমরা যা করে দিয়েছি আর কেউ পারেনি’’।

মুখ্যমন্ত্রী জানান, রাজ্যে তফসিলি পড়ুয়াদের জন্য ইংরাজি মাধ্যম স্কুল তৈরি হচ্ছে। ‘শিক্ষাশ্রী’ প্রকল্পের মাধ্যমে এঁদের পড়াশোনার খরচ চলছে। এ ছাড়া এ বার থেকে তাঁদের উচ্চশিক্ষার জন্য স্বল্পসুদে ঋণ দেওয়া চালু হচ্ছে। ইতিমধ্য়েই তফসিলি জাতির বহু মহিলা রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা পেয়েছেন।

তফসিলি শংসাপত্র পাওয়ার প্রক্রিয়া গত ১০ বছরে অনেক সুগম হয়েছে জানিয়ে মমতা বলেন, এই সব প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ বেশ সফল। শুধু এই শিবিরে গিয়েই খুব দ্রুত শংসাপত্র পেয়েছেন অনেকে। এখনও পর্যন্ত তফসিলি জাতিভুক্ত ১ কোটি ১৪ লক্ষ মানুষকে শংসাপত্র দিয়েছে তাঁর সরকার। এর মধ্যে শুধু গত এক বছরে শংসাপত্র দেওয়া হয়েছে প্রায় ১৭ লক্ষ।

একই সঙ্গে তিনি জানান, ২০১২ সালের পর থেকে তফসিলিদের জন্য বরাদ্দ ৩৬০ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ২,৭৭২ কোটি টাকা। চাকরি ক্ষেত্রে সংরক্ষণে বেড়ে হয়েছে ২২ শতাংশ। ৭৩ লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে দেওয়া হয়েছে বিশেষ স্কলারশিপ।

খবর অনলাইন-এর আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়তে পারেন এখানে:

‘কী ভাবে পাগলামি ছাড়াতে হয়, সেটা জানি’, বিশ্বভারতীর উপাচার্যের কর্মকাণ্ড নিয়ে হুঙ্কার অনুব্রত মণ্ডলের

বিধায়ক ও প্রাক্তন প্রধানের প্যাড, সই জাল করে জয়নগরে ধৃত এক স্কুল শিক্ষক

ব্যাঙ্ককর্মীদের জন্য বড়ো ঘোষণা! পারিবারিক পেনশন বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করল কেন্দ্র

‘পড়াশোনা দাঁড়াবে না’, স্কুল পড়ুয়াদের ডিজিট্যাল সরঞ্জাম তুলে দিয়ে কলকাতা পুলিশের উদ্যোগে শামিল মার্লিন গ্রুপ

বদলির প্রতিবাদে আত্মহত্যার চেষ্টা করা ৫ শিক্ষিকার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন