Mamata Banerjee

ওয়েবডেস্ক: অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে হই-হট্টগোলের জেরে বক্তব্য শুরু করেও নিজের আসনে গিয়ে বসে পড়লেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নদিয়ার পানিঘাটার সভায় শনিবার অংশ নিয়ে নতুন করে বক্তব্য শুরু করতেও বেশ বেগ পেতে হয় তাঁকে।

একই দিনে দু’টি সভা করার লক্ষ্য নিয়ে পানিঘাটা থেকেই শুরু হয় প্রচার। এ দিন দলীয় প্রার্থীদের মঞ্চে নিয়ে তিনি বক্তব্য শুরু করতেই শুরু হয়ে যায় ব্যাপক হই-হট্টগোল। মাইক হাতে মুখ্যমন্ত্রীকে বার বার বলতে শোনা যায়, “আপনারা বসে পড়ুন, শান্ত হোন”।

কিন্তু উপস্থিত জনতার সংখ্যা ছিল এতটাই যে তার প্রাথমিক আবেদনেও তেমন কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়নি। অগত্য বক্তব্য শুরু করতে না-পারায় মেজাজ হারিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নিজের আসনে গিয়ে বসে পড়েন। কিছুক্ষণ পরে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলে তিনি ফের বক্তব্য শুরু করেন।

এ ব্যাপারে অব্যবস্থাকেই দায়ী করছেন দলের একাংশ। মুখ্যমন্ত্রীর সভায় কী পরিমাণ ভিড় হতে পারে, সে কথা মাথায় রাখা হয়নি বলেই দাবি করেছে অংশটি। তা আন্দাজ করে উপযুক্তি ব্যবস্থা নেওয়া হলে এই বিশৃঙ্খলা সহজেই এড়ানো যেত পারে তাদের মত।

তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণের আগে এ দিন নদিয়ার সভা থেকে জেলার একাধিক উন্নয়ন মূলক কাজের তালিকা তুলে ধরেন মমতা। তিনি বলেন, “কল্যাণীতে এইমস হচ্ছে, নদিয়ায় ৬৪ লক্ষ টাকা ব্যয়ে তৈরি মসলিন হাব, কৃষ্ণনগর-রানাঘাটে তৈরি হয়েছে আইআইটি, নবদ্বীপে হেরিটেজ টাউন তৈরি হয়েছে, ৩৪ বছরে বামফ্রন্টের না করা কাজ করতে হচ্ছে আমাদের। বাংলায় কৃষকদের জন্য রয়েছে শস্যবিমা-সহ আরও একাধিক প্রকল্প”।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এ দিনই সভা করেন দক্ষিণ দিনাজপুরে বুনিয়াদপুরে। তিনি ফের মমতাকে ‘বিকাশের স্পিড ব্রেকার’ বলে কটাক্ষ করেন। অন্য দিকে নদিয়ার সভা থেকে মমতা তাঁকে আক্রমণ করে বলেন, “রোজ মিথ্যে কথা বলছেন মোদী। দিল্লিতে মোদীর চেয়ার টলোমলো। তাই তিনি হারাতঙ্ক রোগে ভুগছেন। মোদীবাবু বলি, আগে দিল্লি সামলাও, পরে বাংলার দিকে তাকাও”। একই সঙ্গে এনআরসি নিয়ে মোদীর বিরুদ্ধে তোপ দাগেন মমতা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here