Mamata-Banerjee

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: পুরুলিয়া জেলায় সফরে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে যোগদান করেন ও অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতা-মন্ত্রী ও আধিকারিকদের কাছে সমস্ত কাজের হিসেব নেন । প্রথমেই জেলাশাসককে নির্দেশ দেন সমস্ত আর্থিকস্তরের মানুষকে যেন ১০০ দিনের কাজে নিযুক্ত করা হয় ।

এ দিন বৈঠকে তিনি দাবি করেন, জবকার্ড, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে যুক্ত থাকলেও অনেকে কাজ পান না, সে দিকটি যেন খতিয়ে দেখা হয় । এ জেলায় কিষান ক্রেডিট কার্ড পাননি প্রায় ৬৩ হাজার মানুষ, তাও যেন খতিয়ে দেখা হয় । সমস্ত কিষান মান্ডিগুলি পুরুলিয়া জেলায় প্রায় বন্ধের মুখে, তাই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ কিষান মান্ডিগুলিতে যাতে ব্যবসায় আগ্রহী সকলে বসতে পারেন সে দিকটিও যেন খতিয়ে দেখা হয় ও সকল দরিদ্র পরিবারে যেন মুরগিছানা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয় সে দিকে যেন নজর রাখা হয়। তিনি বলেন, পুরুলিয়ার ছররায় যাতে এয়ারপোর্ট হয় সে দিকের কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে, তা হলে পুরুলিয়া আর পিছিয়ে থাকবে না। পুরুলিয়া জেলায় ছৌ বিখ্যাত, তাই ছৌ-এর ছোট-বড়ো বিভিন্ন রকম মুখোশের দোকান বসানোর ব্যবস্থার দিকেও নজর দিতে বলেন জেলা পর্যটন বিভাগকে ।

এদিনের সভায় কাজের খতিয়ান দেখতে এসে মুখ্যমন্ত্রী জেলা নবনির্বাচিত সভাধিপতি সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলেন, “আগের সভাধিপতি সৃষ্টির মতো যেন সৃষ্টিছাড়া কাজ আপনি করবেন না “।

এ দিন জেলাশাসক আলোকেশপ্রসাদ রায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানান, জেলায় ফলের চাষে পুরুলিয়া এগিয়ে রয়েছে । বেদানার চাষও ইতিমধ্যে জেলার কাশিপুরে করা হচ্ছে, এ ছাড়াও হচ্ছে আম, টোম্যাটো, পেয়ারারও চাষ ।

মুখ্যমন্ত্রী রঘুনাথপুরের মহকুমাশাসক আকাঙ্খা ভাস্কর ও আড়ষার বিডিওকে বলেন, “সাধারণ মানুষ ও মুসলিম এলাকাগুলিতে সামাজিক সক্রিয়তা বাড়াতে ইমামদের সাহায্য নাও”।

পাশাপাশি তিনি যে বিভিন্ন নির্দেশিকা জারি করেন সেগুলি হল, রেশন কার্ড সবসময় নিজেই কাছেই যেন থাকে, অন্য কেউ যেন তা ব্যবহার না করে । অনেকক্ষেত্রে দেখা যায় রেশন ডিলাররা কার্ড আটকে দিয়ে কার্ড উপভোক্তাদের কম দ্রব্য বিক্রয় করেন, এর খবর এলেই ডিলারের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবে রাজ্য সরকার । কোনোরকম সরকারি কাজে ঢিলেমি অথবা আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে সেই সরকারি আধিকারিকের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে । জনসাধারণ সরাসরি এই অভিযোগগুলি করতে পারেন প্রশাসনিক দফতরে ।

এ ছাড়া তিনি জেলার পুলিশ সুপার আকাশ মাঘারিয়াকে বলেন, “অনেক মানুষ ঝাড়খণ্ড থেকে মাথায় ফেট্টি বেঁধে ঢুকছে বাংলায় ও অশান্তির সৃষ্টি করছে। তাই জঙ্গল এলাকাগুলিতে সিসিটিভি ও ওয়াচ টাওয়ারের ব্যবস্থা করা হোক দ্রুত এবং সীমান্তগুলিতে কড়া পাহারা বসানো হোক।

আরও পড়ুন: পুরুলিয়ার কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যানপদ থেকে দলীয় বিধায়ককে সরিয়ে দিলেন মমতা

এই বৈঠক শেষে করে মুখ্যমন্ত্রী পুরুলিয়ার শিমুলিয়া ব্যাটারি গ্রাউন্ডে হিন্দিভাষী মানুষদের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং বলেন, “যখনই আপনাদের কোনো রকম কিছু অসুবিধে হবে আমি আপনাদের পরিবারের সদস্যের মতো পাশে আছি “।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here