কয়লা পাচারকাণ্ডে আরও তৎপর ইডি। প্রতীকী ছবি

কলকাতা: কয়লা পাচারকাণ্ডে আরও তৎপর এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। রাজ্যের আইপিএস (IPS) অফিসারকে তলব করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। জানা গিয়েছে, ১৫ আগস্টের পর দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়েছে তাঁদের।

ইডি সূত্রে খবর, যে আট জন আইপিএস আধিকারিককে তলব করা হয়েছে, তাঁরা হলেন জ্ঞানবন্ত সিংহ, সুকেশ জৈন, রাজীব মিশ্র, কোটেশ্বর রাও, শ্যাম সিংহ, তথাগত বসু, সেলভা মুরুগান এবং ভাস্কর মুখোপাধ্যায়।

কয়লা পাচারকাণ্ডের তদন্তে এর আগেও তলব করা হয়েছিল পুলিশকর্তাদের। তাঁদের বিরুদ্ধে যে শুধু নিষ্ক্রিয় থাকার অভিযোগ রয়েছে তাই নয়, সরাসরি পাচারের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগও উঠেছে তাঁদের বিরুদ্ধে। পুলিশের চোখের সামনে দিয়ে লরি করে কয়লা পাচার হতে দেখেও কোনো এক কারণে পুলিশের বিরুদ্ধে নিশ্চুপ থাকার অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে গোরু পাচার মামলায় রাজ্যের হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই। তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতিকে গ্রেফতারের পর ফের একবার সরব তৃণমূলের একাংশ। কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলিকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে উষ্মা প্রকাশ করছে রাজ্যের শাসক দলের একাংশ।

কয়লা পাচারকাণ্ডেও তৃণমূল যোগের তদন্ত করছে সিবিআই। এর আগে কয়লাপাচার-কাণ্ডে বেশ কয়েক বার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী রুজিরাকেও।

পাশাপাশি, এই মামলায় রাষ্ট্রায়ত্ত কয়লা উত্তোলক সংস্থা ইস্টার্ন কোলফিল্ডস লিমিটেড (ECL)-এর বেশ কয়েক জন কর্তা ও কর্মীকে গ্রেফতার করেছে তদন্তকারী সংস্থা। তবে অন্যতম অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালা এখনও অধরা।

আরও পড়তে পারেন: 

১৪তম উপরাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নিলেন জগদীপ ধনকর

ঢাক বাজিয়ে গুড়-বাতাসা বিলি বিজেপির, কোথাও কোথাও নকুলদানা

গোরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করল সিবিআই

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন