“আমি পুরুলিয়া থেকে নাকখত দিতে দিতে বহরমপুর যাব”, বললেন অধীর

0
Adhir Ranjan Chowdhury

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: “যদি মমতা আমায় হারাতে পারে, আমি পুরুলিয়া থেকে নাকখত দিতে দিতে বহরমপুর যাব।” তীক্ষ্ণ ভাষায় তৃণমূলকে পুরুলিয়ার জনসভায় বিঁধলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী অধীররঞ্জন চৌধুরী । পুরুলিয়া জেলা কংগ্রেসের ডাকে বৃহস্পতিবার আয়োজিত হল পুরুলিয়ার রাসময়দানে কংগ্রেসের বিশাল জনসভা । উপস্থিত ছিলেন, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী, দীপা দাসমুন্সি, গৌরব গগৈ-সহ পুরুলিয়ার বিধায়ক নেপাল মাহাতো ও অন্যান্য নেতা-নেত্রীরা ।

এ দিনের জনসভায় বক্তব্য রাখতে এসে কড়া ভাষায় তৃণমূল ও বিজেপিকে বিঁধলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী অধীররঞ্জন চৌধুরী । এ দিনের জনসভায় তিনি বলেন,”মানুষকে বিভ্রান্ত করে ভোট নিয়েছে তৃণমূল । সাহস থাকলে লোকসভা ভোটে ভয় দেখিয়ে ভোট লুঠ করুক । তাদের চ্যালেঞ্জ করে গেলাম পুরুলিয়ায় এসে।”

পাশাপাশি তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের কাছ থেকে পকেটমারি করে সেই টাকায় আবার তাদের ফেরত দিয়ে বোঝাচ্ছেন তিনি দান করছেন, কিন্তু আসলে তিনি আবার লুঠের টাকায় ফেরত দিচ্ছেন এটা জনসাধারণকে বুঝতে হবে । তৃণমূল সরকার শুরু করেছে চাষিদের জন্য ‘ধান দিন, চেক নিন প্রকল্প’ কিন্তু আদৌ ধান দেওয়ার পর চেক কবে পাওয়া যাবে তার কোনো ঠিক নেই বলেন অধীর ।

পুরুলিয়ার নেপাল মহাতোকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “আমি চাই যেন জেলায় জেলায় এমন নেপাল থাকে, তবেই আবার কংগ্রেসের জোট বাড়বে।”

এ দিন জনসভায় প্রাক্তন মন্ত্রী তথা সাংসদ অধীর ব্যঙ্গ করে বলেন, মানুষ জ্যান্ত থাকলে সরকার কোনোরকম টাকা দেবে না, কিন্তু মরলে তাদের ২ লক্ষ টাকা করে দেবে বলছেন দিদি । অর্থাৎ, টাকা পাওয়ার জন্য মানুষকে আগে মরতে হবে ।
এ ছাড়া এ দিন বিজেপিকে নিশানা করে বলেন, ‘চৌকিদার চুরি করছে।’ যেমনভাবে তিনটি রাজ্যে কংগ্রেস জিতেছে তেমনই এই রাজ্যও কংগ্রেসের হাতে আসবে । বিজেপি শুধু মানুষকে আশা দিয়ে নিরাশ করেছে । ওদেরও বিনাশ সম্মুখে ।

দীপা দাসমুন্সি বলেন, “দিদি নতুন প্রকল্প চালু করতে চলেছেন, ‘চামচাশ্রী’ নামে । বছরের পর বছর পেরিয়ে গেলেও শিল্প হয়নি পুরুলিয়ায়, এখনো জেলার মানুষদের শ্রমিকের কাজ করতে ভিনদেশে, ভিন রাজ্যে যেতে হচ্ছে । তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠিত হবে খুব শীঘ্রই”।

[ আরও পড়ুন সভা করলেও জয়নগরে মোয়া খাওয়া হল না স্মৃতির! ]

কংগ্রেসের ডাকা এই জনসমাবেশে ও আইন অমান্য আন্দোলনে এ দিন রেকর্ড সংখ্যক ভিড় হয় পুরুলিয়ার রাসময়দানে । প্রায় ৩০ হাজার লোকের জমায়েত হয় এ দিন রাসময়দানের মাঠে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here