Congress and TMC Symbol
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

কলকাতা: ছত্তীসগঢ়ের বিধানসভা নির্বাচনে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে কংগ্রেস প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার বার্তা দিয়েছেন সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। পাশাপাশি তাঁর আহ্বানকে স্বাগত জানিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্রও সহযোগিতার হাত বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু এরই মধ্যে সেই সরল সমীকরণে কিছুটা হলেও ‘বক্ররেখা’ সৃষ্টি করল কংগ্রেস সাংসদ মৌসম বেনজির নুরের বক্তব্য।

সাংসদ তথা মালদহ জেলা কংগ্রেস সভানেত্রী মৌসম বলেন, “আগামী লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে সারা দেশেই বিজেপি-বিরোধী জোট হচ্ছে। আমাদের রাজ্য বিজেপিকে রুখতে তৃণমূলের সঙ্গে জোট করুক কংগ্রেস”।

 

mausam benazir noor, mp

মৌসমের এমন মন্তব্যের পর কংগ্রেসের পুরনো দ্বন্দ্ব ফের ময়দানে হাজির হয়েছে। কয়েক মাস আগেও তৃণমূলের সঙ্গে জোট চেয়ে দিল্লিতে দরবার করেছিলেন একাংশের কংগ্রেস নেতৃত্ব। তাঁদের প্রস্তাব অবশ্য তৎকালীন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর হস্তক্ষেপে বাস্তবায়িত হয়নি। কিন্তু এরই মাঝে সেই দাবির উত্থাপনকারী একাধিক কংগ্রেস নেতা তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। সে সময় শোনা গিয়েছিল, খোদ মৌসমও যোগ দিতে পারেন তৃণমূলে। কিন্তু পরে সে কথাকে গুজব বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়। তবে বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তৃণমূলের সঙ্গে কংগ্রেসের জোট করার প্রস্তাব রেখে মৌসম পুরনো বিকর্তে নতুন ইন্ধন জোগালেন।

দিল্লিতে গৃহযুদ্ধ, বাংলায় কোমর বেঁধে নেমে পড়ল সিবিআই!

অন্য দিকে মালদহ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি দুলাল সরকার এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে জানান, এ ব্যাপারে তাঁর কিছু বলার নেই। কারণ, যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেবেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে জেলা বিজেপির তরফে অবশ্য কংগ্রেস-তৃণমূল জোট হওয়া বা না-হওয়াকে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here