ওয়েবডেস্ক: বামফ্রন্টের সঙ্গে কংগ্রেসের জোট প্রক্রিয়া এক প্রকার ভেস্তে গিয়েছে। তার পরেও বামেদের তরফে কংগ্রেসের জন্য চারটি আসন ছেড়ে রেখে জোট-বার্তা দেওয়া হল কংগ্রেসের উদ্দেশে। যদিও সেই আহ্বানে সাড়া দেওয়ার কোনো রকমের আগ্রহ-ই যে প্রদেশের নেই, সে কথাও স্পষ্ট করলেন সোমেন মিত্র।

মঙ্গলবার দ্বিতীয় দফায় ১৩টি আসনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল বামফ্রন্ট। প্রথম দফায় ২৫টি আসনে প্রার্থী ঘোষণার পর স্বাভাবিক ভাবেই এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসের জেতা চারটি আসনে প্রার্থী মনোনয়ন স্থগিত রেখেছে বামফ্রন্ট। পাশাপাশি বুধবার বিকেল ৪টে পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু জানিয়ে দিয়েছেন, আগামী কাল বিকেল ৪টে পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে কংগ্রেসের তরফে ইতিবাচক সাড়া না পাওয়া গেলে ওই চারটি আসনেও বামপ্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দেবে ফ্রন্ট।

এর পরই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র কোনো রাখঢাক না করেই জানিয়ে দেন, “দলের সম্মানের সঙ্গে কোনো মতেই আপস করা হবে না। বামেদের করুণা চায় না কংগ্রেস”।

[ আরও পড়ুন: দ্বিতীয় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ বামেদের ]

একই সঙ্গে বামেদের সঙ্গে জোট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আসন ভাগাভাগি করার জন্য পারসেন্টেজটা দেখা দরকার। পাশ করতে হলে ন্যূনতম যে নম্বর পাওয়ার প্রয়োজন, সেটা কি ওরা পেয়েছে। কংগ্রেস একাই লডবে বাংলার ৪২টি আসনে। দলের সম্মানের সঙ্গে আপস করে জোটের কোনো প্রয়োজন নেই”।

[ আরও পড়ুন: ৫৬টি লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল কংগ্রেস, পশ্চিমবঙ্গের ১১ ]

অন্য দিকে বামফ্রন্টের তরফে রায়গঞ্জে সিপিএম প্রার্থী দেওয়ার পরেও স্থানীয় স্তরে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন প্রাক্তন সাংসদ দীপা দাশমুনসি। তিনি যে ওই কেন্দ্র থেকে হাত-প্রতীকে প্রার্থী হচ্ছেন, সেটাও নিশ্চিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here