কলকাতা:  নিজের জীবনী ‘খামোশ’-এ এই কথা আগেই উল্লেখ করেছেন, কিন্তু বন্ধু রাজেশ খন্নার বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়ানোর ‘ভুল’কে তিনি এখনও মনে রেখে দিয়েছেন সেটা বোঝা গেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়, বইমেলায়।

কলকাতা সাহিত্য সম্মেলনের (কলকাতা লিটেরারি ফেস্টিভাল) উদ্বোধনী বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শত্রুঘ্ন সিনহা। সেই অনুষ্ঠানে তিনি আরও একবার ডুব দিলেন সেই ১৯৯১-এর কথায়, যখন বন্ধু রাজেশ খান্নার বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি।

শত্রুঘ্নর মতে, রাজেশ খান্নার বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়ানোর পরেই দু’জনের সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়। ভোটে শত্রুঘ্ন হেরে গেলেও মন গলেনি ‘কাকা’র। তখন থেকেই শত্রুঘ্নর সঙ্গে কথা বলা এমনকি বাড়িতে যাতায়াতও বন্ধ করে দেন রাজেশ।

নির্বাচনে দাঁড়ানোর ব্যাপারে তিনি রাজেশ খন্নাকে বোঝানোর চেষ্টা করেছিলেন বলে জানান শত্রুঘ্ন। তাঁর কথায়, “নির্বাচনে দাঁড়ানো নিয়ে আমি প্রথম থেকেই ওঁকে বোঝানোর চেষ্টা করি যে এটা পার্টির সিদ্ধান্ত। বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণীকে কথা দেওয়ার জন্যই আমি নির্বাচন থেকে পিছু হটতে পারিনি। কিন্তু ও আমার কোনো কথাই শোনেনি।”

শত্রুঘ্ন বলেন, তার পর থেকে বহু বার রাজেশের কাছে ক্ষমা চাওয়ার চেষ্টা করেছেন এই বিষয়। এমনকি তাঁর মৃত্যুর দিনেও তাঁর কাছে ক্ষমা চাইতে যাওয়ার কথা ছিল, কিন্তু সেই সুযোগ রাজেশ খন্না দেননি বলে আপশোশ করেন শত্রুঘ্ন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here