ওয়েবডেস্ক: বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বর্ষণে বিপর্যস্ত কলকাতা এবং দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলির জনজীবন। শুক্রবার থেকেই কলকাতার পাশাপাশি হাওড়া, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, নদিয়া, মুর্শিদাবাদেও চলছে প্রবল বৃষ্টি। আগামী ২৪ ঘণ্টায় একই রকমের পরিস্থিতি বজায় থাকতে পারে বলে জানিয়েছে হাওয়া-অফিস। সে দিকে নজর রেখেই একাধিক ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।

প্রবল বৃষ্টিতে শহরবাসীর যাতে কোনো সমস্যা না হয়, সে দিকে তাকিয়েই কন্ট্রোল রুম চালু করেছে কলকাতা পুরসভা। সেখান থেকেই চলছে নজরদারি। বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত নবান্নও। আবহাওয়া দফতরের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্য প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিরা। বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীদেরও প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণাবর্তের জোড়াফলায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে মৌসুমী অক্ষরেখা। তারই ফলে টানা বৃষ্টি শুরু হয়েছে। তবে আলিপুর আবহাওয়া দফতর আগামী ২৪ ঘণ্টা ভারীবর্ষণের কথা জানালেও একটি বেসরকারি সংস্থার মতে, এর ফলেই আগামী ৪৮ ঘণ্টা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

গত শুক্রবার থেকেই জল জমে রয়েছে পার্ক স্ট্রিট, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, ঠনঠনিয়া কালিবাড়ি, একবালপুর, খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস-সহ উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকায়। একই সঙ্গে চলছে চল নিষ্কাশণের জন্য বাড়তি তদারকি।

এ দিকে দক্ষিণবঙ্গের আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বর্ষণের পূর্বাভাসের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আগামী রবিবার পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের পাঁচটি জেলা, যথা দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আবার, আগামী সোমবারেও বেশ কয়েকটি জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানায় আবহাওয়া দফতর।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন