ফের বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুর

0
sayantan basu
বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটের প্রচার চলাকালীন বিতর্কিত মন্তব্য করে নির্বাচন কমিশনের কোপে পড়েছিলেন বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু। এখন সে সবের বালাই নেই। মঙ্গলবার হাবড়ার গোয়ালবাটিতে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিক বৈঠকে তাঁর হুঁশিয়ারি রীতিমতো মাত্রা ছাড়াল।

এ দিন সাংবাদিকদের সামনে তিনি বলেন, “চোখ দেখালে চোখ গেলে নেওয়ার ক্ষমতা আছে”। যদিও এহেন ‘উত্তেজক’ মন্তব্য তিনি এই প্রথমবার করলেন না।

লোকসভা ভোটে বসিরহাট থেকে প্রার্থী হয়ে জিততে পারেননি সায়ন্তন। তবে এলাকার সঙ্গে সংযোগ রেখে চলছেন তিনি। লোকসভা ভোটের প্রচারের শুরুতেই তিনি দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, “বেচাল করলে চাল ঠান্ডা করে দেব। কত ঔরঙ্গজেবকে ঠিক করেছি, একটা দু’টো শাহজাহান ঠিক করতে পারব না”! আরও বেপরোয়া হয়ে কর্মীদের উদ্দেশে তাঁর বার্তা, “নির্বাচনের দিন বুথ দখল করতে এলে, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বলেছি, গুলি যেন বুক লক্ষ্য করে যায়, পায়ে মারা না হয়। এই লড়াই গণতন্ত্র বাঁচানোর। মার খেয়ে প্যানপ্যান করবেন না। মার খেয়ে পাল্টা মার দিয়ে ফোন করবেন। অত্যাচার করলে ছাড়বেন না। যারা মারতে আসবে তাদের মেরে মরবেন”। আবার মহিলাদের উদ্দেশে বঁটি ধার দিয়ে রাখার বার্তাও দেন।

এ দিন সায়ন্তন বলেন, “কেউ চোখ দেখালে চোখ গেলে নেওয়ার ক্ষমতা বিজেপির আছে। বিজেপির কার্যকর্তাদের আঙুল দেখালে আঙুল ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে”।

এ দিন সাংবাদিকদের সামনে তিনি তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইভিএমের পরিবর্তে ব্যালটে ভোটগ্রহণের দাবি প্রসঙ্গেও কটাক্ষ করেন। সায়ন্তন বলেন, ব্যালটে ভোট হলে ছাপ্পা দিতে সুবিধা হবে, কিন্তু ইভিএমে হলে সেটা সম্ভব নয়। ২১ জুলাই তৃণমূলের শহিদ দিবসের মঞ্চে মমতা ইভিএম নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে জোরাল অভিযোগ করেন।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here