হেরে গিয়ে একশো আশি ডিগ্রি ‘ডিগবাজি’ সায়ন্তন বসুর!

0
sayantan basu
বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী তথা দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর ফেসবুক পোস্ট ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ালেও এই ঘটনা যে ঘটারই ছিল, তেমনটাই মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল। ওই ফেসবুক পোস্টের প্রেক্ষিতে অনেকেই ধারণা করছেন, সায়ন্তন সম্ভবত রাজনীতি থেকে অবসর নিতে চাইছেন। তবে যে কারণে এমন মতে আবির্ভাব, তার লক্ষণ মিলেছিল আগেই।

লোকসভা ভোটে জয়ী বিজেপি প্রার্থীরা যেদিন দল বেঁধে দিল্লিতে সে দিনই তিনি আক্ষেপ প্রকাশ করে ওই ফেসবুক পোস্ট করেন। যেখানে তিনি লিখেছেন, ” একটা পুরনো স্বপ্ন বাস্তবায়িত হতে চলেছে। আগামীতে আমরা বিজেপি শাসিত রাজ্য সরকার পেতে চলেছি। বাংলার সাধারণ মানুষ জানেন, এটাকে কেউ রুখতে পারবে না। অনেক চেষ্টা করেও আমাদের গাড়ি চলেনি। এখন গাড়ি ফুল গিয়ারে। এই অবস্থায় গাড়ির মধ্যে বসে আছেন এমন কারও হাতে আমার ব্যাটন তুলে দিতে চাই। আমার আদর্শগত দায়বদ্ধতা আমি সমাজসেবায় ব্যবহার করতে চাই”।

এই পোস্ট সম্পর্কে সায়ন্তন বলেন, “বসিরহাট কেন্দ্র আমি ভালো ভাবে চিনতাম না। তবুও আমাকে ওই কেন্দ্রে টিকিট দেওয়া হয়েছিল। যা কিছু বলার দলকে বলব”।

অথচ লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন কেন্দ্র বাছাই প্রসঙ্গে খবরঅনলাইনের প্রতিনিধিকে সায়ন্তন বলেছিলেন পুরোপুরি উল্টো কথা।

তাঁর কাছে প্রশ্ন ছিল, কয়েক বছর ধরেই ঝাড়গ্রাম-পুরুলিয়ায় লাগাতার আন্দোলনে ছিলেন, দল আপনাকে বসিরহাটে প্রার্থী করল। অচমকা ওই কেন্দ্রে প্রার্থী করার পিছনে নির্দিষ্ট কোনো কারণ রয়েছে?

উত্তরে তিনি বলেন, “আমি তো দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক। ফলে নির্দিষ্ট কোনো লোকসভার সাধারণ সম্পাদক নই। দল যেখানে প্রার্থী করতে চেয়েছে, সেখানেই প্রার্থী হয়েছি”। অথচ এখন তিনি বলছেন, ‘অচেনা’ কেন্দ্রে তাঁকে প্রার্থী করা হয়েছিল!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here