তৃণমূলের সেলেব প্রার্থীকে নিয়ে ক্ষোভ দলের নিচু তলায়, বিস্ফোরক দাবি জেলা সভাপতির

0
Mamata banerjee
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাট কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছিলেন নাট্যব্যক্তিত্ব অর্পিতা ঘোষ। সে সময়ই মালদহ উত্তর ও বহরমপুরে গানের জগতের পরিচিত মুখ সৌমিত্র রায় এবং ইন্দ্রনীল সেন পরাজিত হলেও নিজের কেন্দ্রে জিতে যান অর্পিতা। এ বারেও ওই কেন্দ্রে তাঁকেই প্রার্থী করেছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রার্থী তালিকা প্রকাশের দিন ঘুরতেই নিচু তলায় ধরা পড়ল ক্ষোভের আঁচ।

গত মঙ্গলবার কালীঘাটে বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ মমতা প্রার্থী ঘোষণার আগে পর্যন্ত বালুরঘাটের তৃণমূল প্রার্থী হিসাবে সংবাদ মাধ্যমে ঘুরে বেড়িয়েছে জেলা তৃণমূল সভাপতি বিপ্লব মিত্রের নাম। অথচ কিছুটা অবিশ্বাস্য ভাবেই প্রার্থী তালিকায় ফের ঠাঁই পেয়ে যান অর্পিতা। এই নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন তৃণমূলের নিচু তলার কর্মীরা। এমনকি সে খবর কানে পৌঁছোনো মাত্রই বিপ্লববাবুও সংবাদ মাধ্যমের কাছে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

Arpita Ghosh
অর্পিতা ঘোষ। ফাইল ছবি

তাঁর বক্তব্য, বিদায়ী সাংসদ ও প্রার্থীকে নিয়ে তাঁর কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শাসকদলের নিচু তলার কর্মীরা। বিষয়টি দলনেত্রীকেও তিনি জানাবেন। প্রা্র্থী হিসাবে তাঁদের কেন অনীহা অর্পিতাকে নিয়ে?

বিপ্লববাবু জানিয়েছেন, গত পাঁচ বছরে এলাকায় কোনো কাজেই বিদায়ী সাংসদ অর্পিতা ঘোষকে পাওয়া যায়নি। তিনি অভিযোগ পেয়েছেন, বিদায়ী সাংসদ মানুষের কাছে পৌঁছোতে পারেননি। যে কারণে দলের নিচু তলার কর্মীরা রীতিমতো ক্ষুদ্ধ।

[ আরও পড়ুন: প্রার্থী তালিকায় ‘তারকা’-মুখের সংখ্যা নামিয়ে আনলেন মমতা ]

যদিও এ ব্যাপারে অর্পিতা বলেন, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে প্রার্থী হিসাবে মনোনীত করেছেন। এলাকার তৃণমূলকর্মীরা প্রচারের কাজে নেমে পড়েছেন।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.