খবরঅনলাইন ডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার দিন রাজ্য পুলিশে একাধিক রদবদল করার কথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই তালিকায় তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে রয়েছেন কোচবিহারের পুলিশ সুপারও। দেবাশিস ধরের জায়গায় ওই জেলার পুলিশ সুপার করা হয়েছে কে কান্নানকে।

ভোটের ঠিক আগে আগেই দেবাশিসকে কোচবিহারের পুলিশ সুপারের দায়িত্বে পাঠানো হয়েছিল। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মমতা শপথগ্রহণের পরেই রাজ্য পুলিশে একাধিক রদবদল করা হয়েছে। সেই তালিকায় দেবাশিসও। তাঁর জায়গায় কান্নানকে পাঠানো হচ্ছে।

Loading videos...

উল্লেখ্য, গত ১০ এপ্রিল রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটের দিন কোচবিহারের শীতলকুচি কেন্দ্রের জোড়পাটকির ১২৬ নম্বর বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ জনের মৃত্যুর অভিযোগ ওঠে। সেই সময় কোচবিহারের পুলিশ সুপার দাবি করেন, বাহিনী আত্মরক্ষার্থে গুলি চালিয়েছে। তাঁর বক্তব্য ছিল, প্রায় ৩০০ জনের একটি দল লাঠি এবং হাতে তৈরি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করে।

পুলিশ সুপার আরও জানান, উত্তেজিত জনতা চড়াও হওয়ায় ইভিএম এবং আগ্নেয়াস্ত্র ছিনতাই হয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়। তাই কেন্দ্রীয় বাহিনী গুলি চালায়। সেই গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু হয় এবং একজন আহত হন। যদিও পরবর্তী কালে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট সামনে আসার পর পুলিশ সুপারের ওই দাবি ঘিরে পাল্টা প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

তবে শুধু কোচবিহারের পুলিশ সুপারই নন, এ ছাড়াও রাজ্যের একাধিক জেলার পুলিশ সুপারকে বদলি করা হয়েছে। পুর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার করা হয়েছে ইন্দিরা মুখোপাধ্যায়কে। ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার করা হয়েছে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এ ছাড়া আরও একাধিক জেলার পুলিশ সুপার এবং পুলিশ আধিকারিক বদল করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন ৭ মে থেকে পূর্ব রেলের ১৬টি ট্রেন বাতিল, দেখে নিন কোন কোন ট্রেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.