নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে ইত্যিমধ্যেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস-সহ অধিকাংশ বিরোধী দল। শাসক-বিরোধী তরজায় সরগরম দেশের রাজনৈতিক বাতাবরণ। এর মধ্যেই রিজার্ভ ব্যাঙ্কের একটি নির্দেশিকার বিরুদ্ধে সুর চড়াতে শুরু করল পশ্চিমবঙ্গের সমবায় ব্যাঙ্কগুলি। এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে সমস্ত সমবায় ব্যাঙ্ককে একসঙ্গে নিয়ে পথে নেমে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিলেন জলপাইগুড়ি কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা আলিপুরদুয়ারের বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী।

কী সেই নির্দেশিকা?

গত ১৪ নভেম্বর রিজার্ভ ব্যাঙ্ক একটি নির্দেশিকা জারি করে জানায়, সমবায় ব্যাঙ্কগুলি অন্যান্য ব্যাঙ্কের মতো বাতিল ৫০০, ১০০০ টাকার নোট জমা নিতে পারবে না। এর ওপর বৃহস্পতিবার আরও একটি নির্দেশিকা জারি করে আরবিআই জানিয়েছে, সমবায় ব্যাঙ্কগুলির কাছে জমা থাকা পুরোনো ৫০০ বা ১০০০ টাকার নোট অন্য কোনো ব্যাঙ্কে জমাও দেওয়া যাবে না। পুরোনো নির্দেশিকা যা-ও বা মেনে নেওয়া গিয়েছিল, নতুন নির্দেশিকার ফলে আতান্তরে পড়েছে সমবায় ব্যাঙ্কগুলি। এতদিন ধরে নিজেদের কাছে জমা থাকা অসংখ্য ৫০০ আর ১০০০ টাকার নোট নিয়ে তারা এখন কী করবে সে সম্পর্কে কোনো স্পষ্ট নির্দেশ নেই আরবিআইয়ের তরফে। এর ফলে আতঙ্কিত সমবায় ব্যাঙ্কগুলি।

শুক্রবার ব্যাঙ্কে সাংবাদিক সন্মেলন করে সৌরভবাবু জানান, “রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সমবায় ব্যাঙ্কগুলির ক্ষতি করার জন্য একের পর এক নির্দেশিকা জারি করে চলেছে।” তাঁর অভিযোগ, “এর ফলে চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে এই ব্যাঙ্কগুলি। এই ধরনের সিদ্ধান্ত সমবায় আন্দোলনকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। যার ফলে আখেরে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন রাজ্যের দরিদ্র চাষি, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী যাঁরা এই ব্যাঙ্কগুলির ওপর নির্ভরশীল।” তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, সব সমবায় ব্যাঙ্ককে একসঙ্গে নিয়ে আন্দোলনে নামা হবে। প্রয়োজনে দিল্লিতে গিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সামনে ধরনায় বসবেন তাঁরা।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন