Coronavirus Second Wave: মাত্র দু’সপ্তাহে সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় ৮১৬ শতাংশ বৃদ্ধি পশ্চিমবঙ্গের এই জেলায়

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনা। প্রথম ঢেউয়ের সময় পরিস্থিতি যে রকম ছিল, এখন পরিস্থিতি আরও খারাপ। প্রথম বারের মতো এ বারও সংক্রমণের কেন্দ্রবিন্দু কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণা। এর পাশাপাশি কয়েকটি জেলার পরিস্থিতি আরও বেশি বিপজ্জনক বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

রাজ্যে এই মুহূর্তে ৭টি জেলায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যা চার অংকে রয়েছে। এর মধ্যে সব থেকে বেশি সক্রিয় রোগী (৭,৭৪০) কলকাতায়। দ্বিতীয় স্থানে থাকা উত্তর ২৪ পরগণায় সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৫,৯৫৫ জন।

Loading videos...

কিন্তু স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বিশেষ ভাবে চিন্তিত এখন বীরভূমকে নিয়ে। গত দুই সপ্তাহে এই জেলায় সক্রিয় রোগীতে বৃদ্ধি এসেছে ৮১৬ শতাংশ। এটা কার্যত ভাবনারও বাইরে। যে বীরভূম জেলায় মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্তও সংক্রমণ হত নগণ্য, সেখানে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।

গত ২৯ মার্চ, এই বীরভূমেই সক্রিয় করোনারোগী ছিলেন ১৭১ জন। সেটা বর্তমানে বেড়ে হয়েছে ১,৫৬৮ জন। গত দু’ সপ্তাহ ধরে লাগাতার এই জেলায় দৈনিক দু’শোর বেশি সংক্রমণ ঘটছে। অথচ প্রথম ঢেউয়ের সময়ে আগস্টে মাত্র একদিনই বীরভূমে সংক্রমণ দু’শো ছাড়িয়েছিল।

তবে শুধু বীরভূমই নয়, আরও কিছু জেলার পরিস্থিতি সংকটজনক। গত দুই সপ্তাহে সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় ৫৮৭.৮১ শতাংশ বৃদ্ধি এসেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণায়, হুগলিতে বেড়েছে ৫২৪.০৮ শতাংশ। উত্তর ২৪ পরগণা এবং পশ্চিম বর্ধমানে সক্রিয় রোগী বেড়েছে যথাক্রমে ৪৪৬.৮৩ শতাংশ এবং ৪৪১.৬৬ শতাংশ। হাওড়ায় রোগী বেড়েছে ৪০৩ শতাংশ।

শতাংশের বিচারে কলকাতায় সক্রিয় রোগীর বৃদ্ধি তাও কিছুটা কম, ২৮৯.৩৩ শতাংশ। তবে এই পরিস্থিতি থেকে দ্রুত বেরিয়ে আসতে চাইছে বাংলা। তবে সেটা এখনই সম্ভব বলে মনে হয় না। এ রাজ্যে সংক্রমণ এখনও চূড়ার দিকে যাচ্ছে। সেই চূড়া কবে আসবে কেউ জানে না। ফলে রাজ্যের সংক্রমণচিত্র কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, সেটা ভাবাই যাচ্ছে না।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Coronavirus Second Wave: কিছুটা স্বস্তির খবর দিল মহারাষ্ট্র, দৈনিক সংক্রমণকে ছাড়িয়ে গেল সুস্থতা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.