মারা গেলেন করোনা আক্রান্ত নয়াবাদের বৃদ্ধ

প্রতীকী ছবি

কলকাতা: পাঁচ দিন ভেন্টিলেশনে থাকার পর বুধবার বিকেলে মারা গেলেন করোনাভাইরাস (Coronavirus) আক্রান্ত নয়াবাদের এক বৃদ্ধ। সম্প্রতি তিনি পূর্ব মেদিনীপুরের একটি বিয়েবাড়িতে অংশ নেন। সেখান থেকেই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভরতি ছিলেন। এ দিন পঞ্চসায়রের ওই হাসপাতালের তরফে তাঁর মৃত্যু সংবাদ জানানো হয়।

একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন ওই বৃদ্ধ। তাঁর পরিবারের দাবি, তাঁর বিদেশ যাওয়ার কোনো যোগ ছিল না। তবে গত ১২ মার্চ তিনি এগরায় একটি বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন। ১৩ মার্চ সেই বিয়ে এবং ১৫ মার্চ বউভাতের অনুষ্ঠান সেরে গিয়েছিলেন দিঘায়। তার পর থেকেই তাঁর জ্বর আসে। ২২ মার্চ তাঁকে ওই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৫ মার্চ তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সেই রিপোর্টে কোভিড-১৯ ধরা পড়ে। এর পর থেকেই হাসপাতালের ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাঁকে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, তাঁর উচ্চমাত্রায় ডায়াবেটিস ছিল। ফলে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় দ্রুত। কয়েকদিন ধরেই তিনি সংকটে ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে, বৃদ্ধের মৃত্যুর খবর তাঁর পরিবার এবং কলকাতা পুরসভাকে জানানো হয়েছে। নিয়ম মেনেই তাঁর সৎকার করা হবে।

অন্য দিকে বৃদ্ধের দুই আত্মীয়ের শরীরেও করোনা সংক্রমণ ধরে পড়েছে। আক্রান্তের মধ্যে দু’জনের বয়স যথাক্রমে ৫৬ এবং ৭৬ বছর। এঁদের একজনের বাড়ি এগরার দিঘামোড়ে অন্যজনের বাড়ি কলকাতায়।

প্রসঙ্গত, এ দিন সকালেই মৃত্যু হয় বেসরকারি হাসাপাতালে ভরতি থাকা করোনা আক্রান্ত প্রৌঢ়ের। জ্বর, সর্দি-কাশির লক্ষণ নিয়ে গত ২৬ মার্চ থেকে বেলঘরিয়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি ছিলেন তিনি।  বিস্তারিত পড়ুন এখানে: বেলঘরিয়ার করোনা আক্রান্ত প্রৌঢ়ের মৃত্যু

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.