cpim and bjp

ওয়েবডেস্ক: গত সপ্তাহে নদিয়ার করিমপুর-রানাঘাটে একটি মিছিল নতুন বিতর্কের সৃষ্টি করেছিল রাজ্য রাজনীতিতে। কারণ ওই মিছিলে তৃণমূলের ‘সন্ত্রাসের’ বিরুদ্ধে অংশ নেওয়া তিনটি রাজনৈতিক দলের সমর্থকদের হাতে ছিল তিন ধরনের রাজনৈতিক পতাকা। সিপিএম আগেই ঘোষণা করেছে, যেখানে দলীয় প্রার্থী থাকবে না, সেখানে কংগ্রেস অথবা নির্দলকে ভোট দেবেন তাদের ভোটাররা। কিন্তু আচমকা সিপিএম-কংগ্রেস অলিখিত জোটে বিজেপির অন্তর্ভুক্তিতে সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে খোদ বাম মহলেই। সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বিজেপির ছোঁয়াচ এড়াতে বহিষ্কারের ওযুধ প্রয়োগেরও নিদান দিয়েছেন। কিন্তু দলের নদিয়া জেলা সম্পাদক তথা রাজ্য কমিটির সদস্য সুমিত দের বক্তব্যই পুরো ব্যাপারটা খোলসা করে দিয়েছে।

সুমিতবাবু স্বীকার করেছেন, ‘কোথাও কোথাও তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিপিএমের অলিখিত জোটের সম্ভাবনা রয়েছে’। আদতে ঘটেছেও তাই। নদিয়ার করিমপুর বা তেহট্টের একাধিক জায়গায় সিপিএম-বিজেপির ‘এক সাথে’ লড়ার ছবি ধরা পড়েছে বলে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ।

করিমপুরের একটি গ্রাম পঞ্চায়েতে লড়ছেন সিপিএমের সুমিত্রা মণ্ডল। সংশ্লিষ্ট সমিতির প্রার্থী বিকাশ মণ্ডলের মনোনয়ন জমা করেছেন বিজেপি প্রার্থী হিসাবে। আবার জেলা পরিষদে প্রার্থী হয়েছেন বিজেপিরই অজিত রায়। এ বিষয় যে জেলা সিপিএম নেতৃত্বের দৃষ্টির অগোচরে হয়েছে, তা নয়।

আরও পড়ুন: দুই বিরোধী দলের প্রার্থী এক ব্যক্তিই, জানাজানি হতেই একটি মনোনয়ন প্রত্যাহার

অন্য দিকে স্থানীয় এক বিজেপি নেতাও স্বীকার করেছেন, শুধু ওই একটি কেন্দ্রই নয়, জেলার আরও বেশ কয়েকটি আসনের যেখানে বিজেপি প্রার্থী দিতে পারেনি সেখানে বিজেপি সমর্থকরা সিপিএম প্রার্থীকেই ভোট দেবেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here