vidhan sabha west bengal

কলকাতা: বিধানসভায় সংশোধনী বিল পাশ করিয়ে তড়িঘড়ি কলকাতার মেয়রপদে নতুন মুখ আনার সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করল সিপিএম। এ দিন বিধানসভায় পুর আইন সংশোধনের বিলটিকে বিজেপির তরফে সমর্থন করা হলেও সিপিএম বিষয়টি নিয়ে এগোতে চাইছে আদালতের দিকে!

টানটান উত্তেজনা আর রুদ্ধশ্বাসে ভরপুর মেয়র-কাণ্ডের অবসান হয়েছে বৃহস্পতিবার। এ দিনই বিধানসভায় বিল এনে সংশোধন করা হয়েছে রাজ্যের পুর আইন। আবার একই দিনে ইস্তফা দিয়েছেন কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। নাটকীয় ভাবে এ দিনই তৃণমূল কাউন্সিলারদের নিয়ে বৈঠক শেষে নতুন মেয়রপদে ফিরহাদ হাকিমের নাম ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিধানসভায় বিল পাশ করিয়ে কাউন্সিলার নন, এমন একজনকে মেয়রপদে বসিয়ে দেওয়ার এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করেই আদালতে মামলা করতে পারে সিপিএম। তেমনই ইঙ্গিত দিলেন প্রাক্তন পুরমন্ত্রী তথা শিলিগুড়ি পুরসভার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য।

অশোকবাবু সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, বর্তমান আইন অনুযায়ী মন্ত্রী, বিধায়ক, এমনকী সাংসদও মেয়র হতে পারেন৷ কিন্তু তার আগে পুর আইন মেনে আগে কাউন্সিলর নির্বাচিত হতে হয় মেয়র পদপ্রার্থীকে৷ পুরসভায় যাঁর ভোটদানের ক্ষমতা নেই, তিনি কখনোই মেয়র হতে পারেন না৷

আইন সংশোধনের পর আলিপুরে দলের কাউন্সিলারদের সঙ্গে বৈঠক শেষে মমতাও জানিয়েছেন, আইন অনুযায়ী মেয়রপদে নির্বাচনের জন্য দিন দশেক সময় লাগতে পারে। এ কথা তিনি বলেছেন, আইনের সংশোধিত নিয়ম অনুযায়ী।


আরও পড়ুন: আগামী ছ’মাসের মধ্যে দেশ থেকে গায়েব হয়ে যাবে ৬ কোটির বেশি মোবাইল সিমকার্ড


অশোকবাবু বলেন, এ ভাবে মনোনয়নের মাধ্যমে নয়, নির্বাচনের মাধ্যমে মেয়র হতে হয়৷ ফলে পুর আইন বদলাতে হলে সংবিধান সংশোধন করতে হবে৷ সে ব্যাপারে রাষ্ট্রপতিরও সম্মতি প্রয়োজন৷

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here