সুন্দরবনে উম্পুন-দুর্গত মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিল ‘সহমর্মী’

    আরও পড়ুন

    খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘উম্পুন’-এ (amphan) দুর্গত মানুষদের কাছে ত্রাণসামগ্রী নিয়ে ছুটে গেল গড়িয়ার ‘সহমর্মী’ (Sahamarmi)। মঙ্গলবার তারা গোসাবার মন্মথনগরে (Manmathanagar) ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত ৪০০ জন অসহায় আত্মজনের হাতে পৌঁছে দিল ত্রাণ।

    ত্রাণ পৌঁছোনোর আগে থেকেই দুর্গত মানুষের ভিড়।

    সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুব্রত গোস্বামী জানান, সুন্দরবন (Sundarban) থেকে যতটুকু খবর তাঁরা পাচ্ছেন, তাতে বোঝা যাচ্ছে সেখানকার বিস্তীর্ণ এলাকায় যথেষ্ট ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অনেক জায়গার সঙ্গে এখনও যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। ফলে ক্ষয়ক্ষতি ঠিক কতটা এখনও পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে না। তবে ঝড়ের তাণ্ডবেই স্পষ্ট, ভালো রকম ক্ষতি হয়েছে সুন্দরবনের।

    Loading videos...
    ত্রাণসামগ্রী নিয়ে গোসাবার উদ্দেশে।

    ক্ষয়ক্ষতির প্রাথমিক খবর পাওয়ামাত্র গড়িয়ার ‘সহমর্মী’ দুর্গত এলাকায় ছুটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বলে জানান সুব্রতবাবু। তিনি বলেন, করোনার রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে, ভোরের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁরা রওনা দেন গোসাবার উদ্দেশে। নদীর অবস্থা খুব খারাপ। তবু তাঁরা নিরাপদেই পৌঁছে যান পৌঁছে যান মন্মথনগরে।

    - Advertisement -

    ‘সহমর্মী’ অকুস্থলে পৌঁছে যাওয়ার আগে থেকেই ত্রাণ নেওয়ার জন্য অসহায় মানুষের দীর্ঘ লাইন পড়ে গিয়েছিল। এদের হাতে সামান্য কিছু ত্রাণ তুলে দিতে দিতে সুব্রতবাবুদের মনে পড়ছিল সেই বিখ্যাত গান ‘মানুষ মানুষের জন্য’।

    অবশেষে বিতরণ।

    যাঁদের ছাড়া ‘সহমর্মী’র পক্ষে এই কাজ করা সম্ভব হত না, তাঁরা হলেন ভাঙড় কলেজের এনসিসি ক্যাডেটরা। তাঁরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় অভিভূত সুব্রতবাবু। তিনি বলেন, কী অক্লান্ত পরিশ্রম করে যে তাঁরা এই পরিকল্পনা সফল করে তুললেন তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। এঁদের কাছে ‘সহমর্মী’ কৃতজ্ঞ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

    - Advertisement -

    আপডেট খবর