আবহাওয়ার চমক! মরশুমে দ্বিতীয়বার বরফ পড়ল দার্জিলিংয়ে

এই তুষারপাত ঘণ্টাখানেকের বেশি স্থায়ী হয়নি

0
darjeeling snowfall

দার্জিলিং: এগারো বছর বরফের ছোঁয়া পায়নি দার্জিলিং। দার্জিলিংবাসী এবং পর্যটকদের কাছে সেই অপূর্ণতা এ বার সুদে-আসলে মিটিয়ে দিচ্ছে প্রকৃতি। মঙ্গলবার মরশুমের দ্বিতীয়বার তুষারপাত দেখল দার্জিলিং শহর।

২৮ ডিসেম্বর মরশুমের প্রথম তুষারপাত দেখেছিল দার্জিলিং। তার ঠিক ৩১ দিন পর ফের বরফ পড়ল পাহাড়ের রানিতে। পশ্চিমীঝঞ্ঝার দাপটে গত সপ্তাহের শুক্রবার থেকে মাঝেমধ্যে বৃষ্টি হচ্ছে দার্জিলিং। তাই এ দিন সকাল ১১টা নাগাদ যখন আকাশ কালো করে প্রথমে বৃষ্টি নামে, বেশি আমল দেননি বাসিন্দারা। কিন্তু ক্রমে সেই বৃষ্টি, তুষারপাতের রূপ নেয়।

জানুয়ারি মাসের এক্কেবারে শেষলগ্নে এ ভাবে তুষারপাত হতে পারে, সেটা আন্দাজ করতে পারেননি দার্জিলিংয়ের বাসিন্দারা। তাই বরফ পড়া শুরু হতেই রাস্তায় বেরিয়ে আসেন অনেকে। তুষারপাতের আনন্দ নিতে ম্যালে ভিড় জমান পর্যটকরা। তবে এই তুষারপাত ঘণ্টাখানেকের বেশি স্থায়ী হয়নি। বেলা বাড়তে আসতে আসতে সেই বরফের অনেকটাই গলে গিয়েছে।

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা জানিয়েছে, উত্তর ভারত থেকে একটি পশ্চিমীঝঞ্ঝা দার্জিলিং পাহাড়ের ওপরে অবস্থান করছে। সেই সঙ্গে উত্তরপূর্ব ভারতের ওপরে থাকা একটি ঘূর্ণাবর্ত সেই ঝঞ্ঝাকে জলীয় বাষ্পের জোগান দিয়েছে। এর প্রভাবেই এ দিনের এই তুষারপাত। দার্জিলিংয়ের পাশাপাশি সান্দাকফু এবং পূর্ব সিকিমের বিস্তীর্ণ অঞ্চলেও বরফ পড়েছে। অন্য দিকে বৃষ্টি হয়েছে তরাই, ডুয়ার্সে।

আরও পড়ুন তৃণমূল সাংসদকে খুনের হুমকি, ধৃত ১

২০০৭-এর ১৪ ফেব্রুয়ারি প্রবল তুষারপাত হয়েছিল দার্জিলিং শহরে। দার্জিলিংয়ের ইতিহাসে সেটা ছিল অন্যতম ভারী তুষারপাত। গত বেশ কয়েক বছরের তুলনায় এ বার দার্জিলিং পাহাড়ে অনেক বেশি তুষারপাত হয়েছে। ফলে ফেব্রুয়ারিতে আর তুষারপাত হবে না দার্জিলিংয়ে, সে কথা নিশ্চিত করে বলা যায় না।

এ দিকে উত্তর ভারত থেকে বয়ে আসা হিমশীতল উত্তুরে হাওয়া মঙ্গলবার সকাল থেকেই প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে দক্ষিণবঙ্গে। এর প্রভাবে বুধবার সকালে কলকাতায় পারদের রেকর্ড পতন হতে পারে বলে জানিয়েছে ওয়েদার আল্টিমা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.