Kailash and mamata

দার্জিলিং: সর্বভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং (JEE) এবং ডাক্তারি প্রবেশিকা (NEET) পরীক্ষা পিছনোর দাবিতে সারা দেশ জুড়ে ক্রমশ জোরালো হচ্ছে প্রতিবাদ। মামলা গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এই ঘটনার রেশ ধরেই মমতাকে নিশানা করলেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় (Kailash Vijayvargiya)।

শনিবার দার্জিলিংয়ে দলীয় একটি কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে কৈলাস বলেন, “পড়ুয়াদের স্বার্থ না দেখে রাজনীতি করছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী”।

কৈলাস বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই পড়ুয়াদের স্বার্থে কেন্দ্রীয় পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দুর্ভাগ্য এটাই যে বাংলা সারা দেশে শিক্ষার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা নিত, এখন সেই বাংলায় শিক্ষার ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ছে। এর কারণ বর্তমান শাসক দল তথা বর্তমান রাজ্য সরকারের সামনে শিক্ষাগত গুণগত মানোন্নয়নে কোনো দিশা নেই। তারা শুধুমাত্র রাজনীতি করছে”।

একই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, “এই পরীক্ষার জন্য ৯০ শতাংশ পরীক্ষার্থী প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিজেপি শাসিত নয় এমন রাজ্যও নির্বিঘ্নে পরীক্ষা নেওয়ার বন্দোবস্ত করছে। যেমন ওড়িশা। সেখানে বিজেপির সরকার নেই। তবুও সেখানকার সরকার পরীক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা করছে রাজ্য সরকার। এমনই অনেক অ-বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী পরীক্ষার্থী পড়ুয়াদের স্বার্থের কথা ভেবে এগিয়ে আসছেন। দুর্ভাগ্য যে বাংলার পড়ুয়াদের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কোনো চিন্তা নেই, তাঁদের ভবিষ্যতের জন্যও মুখ্যমন্ত্রীর কোনো পরিকল্পনা নেই”।

জয়েন্ট এন্ট্রাস এবং নিট পিছনোর আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে ছ’টি রাজ্য। তবে শনিবারও কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিওয়াল জানান, পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিত করেই পরীক্ষক সংস্থা ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি যাবতীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে।

এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ-সহ দেশের বিভিন্ন রাজ্যে পরীক্ষা পিছনোর দাবিতে সরব হয়ে প্রতিবাদে নেমেছেন পড়ুয়ারা। আরও পড়তে পারেন: জয়েন্ট এন্ট্রাস-নিট পরীক্ষা স্থগিতের দাবিতে অনশনে বসছেন চার হাজারের বেশি পড়ুয়া

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন