ছবি: সৌজন্যে নিউজ ১৮ বাংলা

দার্জিলিং শহরে একের পর এক বেআইনি বহুতল গড়ে উঠেছে। তার জেরে ঢাকা পড়ে যাচ্ছে কাঞ্চনজঙ্ঘা। এবার সেই বহুতলগুলির অবৈধ অংশ ভাঙতে উদ্যোগী হল হামরো পার্টি পরিচালিত দার্জিলিং পুরসভা।
এর আগে পুরসভার পক্ষ থেকে নির্দেশিকা জারি করা হয়। বেআইনি বহুলতগুলির মালিকদের নোটিশও দেওয়া হয়। কিন্তু নোটিশে দেওয়া নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে মালিকরা বাড়ি ভাঙেননি। তার পর এই বহুতলগুলি ভেঙে দেওয়া সিদ্ধান্ত নেয় পুরসভা।

বহুতল ভাঙা শুরু

নিয়ম না মানায় বৃহস্পতিবার পাহাড়ে চারটি বহুতলের বেআইনি অংশ গুঁড়িয়ে দিয়েছে পুরসভা। চেয়ারম্যান রীতেশ পোর্টেল নিজে দাঁড়িয়ে থেকে এই কাজের তদারকি করেন। তিনি বলেন, ”নিয়ম না মানায় বহুতলগুলির বেআইনি অংশ ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। এই তালিকায় আরও বিল্ডিং রয়েছে। সেগুলোরও অবৈধ অংশ আগামী দিনে ভেঙে ফেলা হবে।”

প্রথম দফার তালিকা প্রস্তুত

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথম দফায় ২০ থেকে ২৫ অবৈধ বিল্ডিয়ের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এই বিল্ডিংগুলি কোনটায় তিন তলা কোনটায় আবার চারতলার অনুমতি রয়েছে। কিন্তু নিয়ম ভেঙে একতলা করে বাড়ানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার সেই অবৈধ অংশটি ভেঙে দেওয়া হয় পুরসভার পক্ষ থেকে। তবে চারটি বাড়ির মালিক ইতিমধ্যে আদালতে আবেদন করেছেন।
চেয়ারম্যান বলেন, ”অবৈধ বিল্ডিং-এর আড়ালে মুখ ঢাকছে পাহাড়ের সৌন্দর্য্য। যার জন্য পর্যটকরা এখানে আসেন। আগামী দিনেও এই অভিযান চলবে। তাতে কারও কারও অসুবিধা হলেও কিছু করার নেই।”

সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন অজয় এডওয়ার্ড

পুরসভার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন হামরো পার্টির প্রধান তথা জিটিএ সভাসদ অজয় এডওয়ার্ড। তিনি সাংবাদমাধের কাছে বলেন, ”পাহাড়ে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেআইনি বিল্ডিং ভাঙার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন। সেই মতো কাজ করছে দার্জিলিং পুরসভা। দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে আরও অপরূপ সুন্দর দার্জিলিং উপহার দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য।”

দিনের বাছাই খবর পড়তে দেখুন: khaboronline.com

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন