দার্জিলিং: টানা বৃষ্টি চলছে উত্তরবঙ্গে। পাহাড়ে নামছে ধস। প্রবল বৃষ্টিতে বুধবার সিকিমের ২০ মাইলে ব্যাপক ধস নেমেছে। যার জেরে যান চলাচল প্রায় বন্ধ। সবমিলিয়ে দুর্যোগে থমকে গিয়েছে সিকিম।

মঙ্গলবার রাতভর ব্যাপক বৃষ্টি হয়েছে উত্তরের পাহাড় সহ-সমতলে। পাহাড়ে বৃষ্টির পরিমাণ ছিল অপেক্ষাকৃত বেশি। দফায় দফায় ধস নামে। ইতিমধ্যে সিকিমের ২০ মাইলে ধসের জেরে বিপর্যস্ত যান চলাচল। প্রথমে ধসে ভেঙে পড়া পাহাড়ের অংশ সরিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করার চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু আবার ধস নামে। ফলে এখন যান চলাচল একেবারে বন্ধ বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

দুর্যোগের মধ্যেই জোরকদমে চলছে ধস সরানোর কাজ। জানা গিয়েছে, সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২০ মাইলের ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক। যার জেরে সিকিম যাওয়ার রাস্তায় ব্যাপক যানজট। সিংথাম, রংপোর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। রোরাথাং, তেমি তারকুর রাস্তাও ধসে বিপর্যস্ত হয়েছেন।

দুর্যোগের মধ্যে আটকে পড়েছে পর্যটকরা। কী ভাবে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে ফিরতে পারবেন, তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন পরিজনরা। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রংপো এলাকার ধসের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ভয়াবহ ধসের মধ্যে একটি গাড়ি আটকে পড়েছে। ভিডিও দেখে আতঙ্কে শিউরে উঠেছেন পর্যটকরা। তবে ওই ঘটনায় চালক বা যাত্রীদের কেউ-ই আহত হননি বলেই জানা গিয়েছে।

আবহাওয়া দফতের পূর্বাভাস অনুযায়ী, উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায় আগামী পাঁচ দিন ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। দার্জিলিং ও কালিম্পঙে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকায় ধস নামতে পারে বলে মঙ্গলবারই সতর্ক করেছিল আবহাওয়া দফতর। এ দিন জানানো হয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টার ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে সিকিম জুড়ে। এই নিয়ে হাই অ্যালার্টও জারি করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন:

তৃতীয় দিন ইডি-র মুখোমুখি রাহুল গান্ধী, ধরনায় অধীর চৌধুরী, ভূপেশ বঘেলরা

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন রাজ্যপাল? বিরোধীদের অনুরোধে ইতিবাচক সাড়া

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন