নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: পণের দাবিতে গৃহবধুকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। মৃতার নাম সালমা বেগম। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার ইন্দাস থানার মঙ্গলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মহেশপুরে।

সূত্রের খবর, হুগলির তারকেশ্বর থানা এলাকার মোক্তারপুর গ্রামের বাসিন্দা রশিদা বিবি বুধবার লিখিত অভিযোগ দায়ের করে বলেন, তাঁর মেয়ে ১৯ বছর বয়সি সালমাকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিয়েছে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। পণের দাবিতেই এই ঘটনা বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আরও পড়ুন দীপাবলির রাতে সোনারপুরে বহিরাগত যুবকদের তাণ্ডব, আহত বেশ কয়েকজন

রশিদা বেগমের অভিযোগ, পণ হিসেবে মেয়ের শ্বশুরবাড়ি থেকে ৪০ হাজার টাকা ও সোনার কানের দুল দাবি করা হয়। ৪০ হাজার টাকা দেওয়া হলেও সোনার কানের দুল দিতে না পারায় সব সময়ে তাঁর মেয়েকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হত বলে অভিযোগ। উল্লেখ্য, গত ১৩ জুলাই হুগলির তারকেশ্বরের মোক্তারপুর গ্রামের সালমার সঙ্গে বাঁকুড়ার ইন্দাস থানার মহেশপুর গ্রামের শেখ নাসিরুউদ্দিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পাঁচ মাসের মধ্যেই এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃতার মায়ের নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ইন্দাস থানার পুলিশ তার শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here