তিনি তৃণমূলেই না কি বিজেপিতে? ধন্দ দূর করলেন দেবশ্রী রায়

0
debashree roy

কলকাতা: গত প্রায় মাস তিনেক ধরে দেবশ্রী রায়কে নিয়ে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন কম হয়নি। তিন তৃণমূলেই থাকবেন না কি বিজেপিতে যাবেন, সে নিয়ে বিস্তর জলঘলা হয়েছে। এক সময়ে তাঁর লেখা একটি চিঠিও প্রকাশ্যে আনেন মুকুল রায়, যেখানে অমিত শাহের কাছে বিশেষ নিরাপত্তার দাবি জানাতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। এ বার অবশ্য সেই ধন্দ দূর করলেন রায়দিঘির বিধায়ক।

ভুল বোঝাবুঝি যা ছিল, মিটে গিয়েছে বলে দাবি করলেন দেবশ্রী। তাঁর দাবি, তিনি তৃণমূলেই আছেন, তৃণমূলেই থাকবেন। কাজও করবেন। যোগ দেবেন ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজে।

সোমবার বিধানসভার অন্দরে তাঁকে দেখে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। তাতেই তিনি সাফ জানান, অযথা বিতর্ক হচ্ছে। তিনি তৃণমূলেই আছেন।

যাবতীয় বিতর্কের সূত্রপাত গত ১৪ আগস্ট। সে দিন শোভন চট্টোপাধ্যায়, বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় যখন দিল্লি গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগদান করেন, সেই একদিনে দেবশ্রীকেও দিল্লির কার্যালয়ে দেখা যায়। কিন্তু শেষমেশ দেবশ্রী বিজেপিতে যোগ না দিয়েই ফেরেন।

আরও পড়ুন সুপ্রিম কোর্টে পিছিয়ে গেল রাজীব কুমারের জামিন মামলার শুনানি

তারপরও গুঞ্জন শেষ হয়নি। তিনি কার হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিতে গিয়েছিলেন, কেনই বা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের ভাবনা – নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা চলেছে রাজনৈতিক মহলে।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তাঁর সৌহার্দ্যও গোপন থাকেনি। রায়দিঘির তারকা বিধায়ক দেবশ্রী রায় নিজেও একবার বলেছিলেন যে উপযুক্ত নিরাপত্তা পেলে বিজেপি যোগ দিতে তাঁর কোনো আপত্তি নেই।

এ দিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে দেবশ্রী বললেন, “কিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল, কেউ কেউ ভুল বুঝেছিলেন। তবে সব মিটে গেছে। সবাই জানেন যে আমি তৃণমূলেই আছি। এত বিতর্ক হয়েছে এটা নিয়ে, তা ঠিক নয়।”

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.