west bengal assembly
প্রতীকী ছবি। যশনিউজ.কম থেকে

কলকাতা: বিধানসভার অধিবেশনে বিরোধীদের উত্থাপিত লোকায়ুক্ত আইন চালু নিয়ে সোজা কথা কৈফিয়ত না দেওয়ার কথা জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও এই বিলের উপর আলোচনা বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত অব্যাহত।

বৃহস্পতিবার বিধানসভায় রাজ্যের লোকায়ুক্ত আইনের উপর সংশোধনী বিল পেশ করা হয়। বিরোধীদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রীকে লোকায়ুক্তের বাইরে রাখার জন্যই এমন বিল তৈরি করা হয়েছে। কেন্দ্রের তরফে রাজ্যপাল, প্রধানমন্ত্রীর মতোই মুখ্যমন্ত্রীদেরও এই আইনের বাইরে রাখার যুক্তি খাড়া করা হলেও তা মানছেন না বিরোধীরা। তাদের দাবি, সরকারের যে কোনো কাজের লক্ষ্যই হল জনগণের জীবনে সুস্থিতি বজায় রাখা, তা হলে রাজ্য প্রশাসনের সর্বোচ্চপদে থাকার হেতু মুখ্যমন্ত্রী কেন বাদ পড়বেন।

এ দিন বামফ্রন্ট, কংগ্রেস ও বিজেপির তরফে দাবি করা হয়, মুখ্যমন্ত্রীকে কেন বিলের আওতার বাইরে রাখা হবে। রাজ্যের মানুষই তাঁর রক্ষাকবচ। তিনি তো সততার প্রতীক। তা হলে তাঁকে কেন আইনি রক্ষাকবচ নিতে হচ্ছে?

বিরোধীদের এমন মন্তব্যের পর তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়, এ বিষয়ে অযথা ইচ্ছাকৃত ভাবে বিতর্ক তৈরি করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: রাজ্যের নাম বাংলা, প্রস্তাব পাশ বিধানসভায়

তবে বক্তব্যের শুরুতেই মুখ্যমন্ত্রী এ সব যুক্তির না মানার কথা স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেন। তিনি বলেন, “কেন্দ্রও এখনও লোকায়ুক্ত আইন চালু করেনি। দীর্ঘ দিন ধরে টালবাহানা চলছে। আগের বামফ্রন্ট সরকার দু’বছর ধরে কাজ বন্ধ করে রেখেছিল। একটা অফিস ঘর পর্যন্ত দেয়নি। এই বিল নিয়ে আমি কারও কাছে কোনো কৈফিয়ত দিতে যাব না”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here