দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের বিস্ফোরক মন্তব্যই হাতিয়ার সিবিআইয়ের

Rajeev Kumar
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: সারদা আর্থিক কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে আর এক অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের বয়ানকে হাতিয়ার করেই তদন্তের ‘সুতো’ গোটাচ্ছে সিবিআই।

প্রায় সাত মাস অপেক্ষা করে সারদার আধিকারিক দেবযানীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তদন্তকারীরা। সিবিআই সূত্রে খবর, দেবযানীর বয়ানে রাজীবের বিরুদ্ধে উঠে এসেছে ‘সাংঘাতিক’ অভিযোগ।

দেবযানী না কি সিবিআইকে বলেন, “আমি সারদার জমি, মিডিয়া এবং গাড়ি সংক্রান্ত সমস্ত নথিই রাজীব কুমারকে দিয়েছিলাম”। দেবযানী জানান, তিনি বিধাননগর পুলিশের সঙ্গে সারদার মিডল্যান্ড পার্কের অফিসে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ তাঁকে প্রথমে নিয়ে যায়নি। পরে যখন তাঁকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়, গিয়ে দেখেন অফিস তছনছ করা হয়েছে। কাচ ভাঙা এবং নথিপত্রও অসংলগ্ন অবস্থায় রয়েছে। দেবযানীর দাবি, আগেই পুলিশ গিয়ে নথি সরিয়েছিল।

রাজীবের বিরুদ্ধে জোরালো অভিযোগ করে দেবযানী বলেন, “আমি প্রায় ২৩ দিনের চেষ্টায় সারদার জমি এবং মিডিয়ার গুরুত্বপূর্ণ নথির শর্টলিস্ট বানিয়ে রাজীব কুমারকে দিয়েছিলাম। সেই সমস্ত নথি আলাদা আলাদা ট্রাঙ্কে ভরে পুলিশ। একটি ট্রাঙ্কে ছিল জমির নথি অন্যটিতে ছিল মিডিয়ার। এমনকী সারদার গাড়ি সংক্রান্ত তথ্যও পেন ড্রাইভে দিয়েছিলাম”।

দেবযানীর এমন বয়ানকেই মোক্ষম হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করছে সিবিআই। সূত্রের খবর, দেবযানীর পর সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেনের সঙ্গেও কথা বলার অনুমতি আদায়ে আদালতে আবেদন করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

অন্য দিকে বৃহস্পতিবার আলিপুর আদালতে রাজীবকে গ্রেফতারির অনুমতি পাওয়ার পর শুক্রবার দিনভর তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালায় সিবিআই। কলকাতায় তাঁর স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি দক্ষিণ ২৪ পরগনার রিসর্টেও হানা দেন তদন্তকারীরা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত রাজীব অধরা!

তবে রাজীব যে এখনও কলকাতাতেই রয়েছেন, সে বিষয়ে মোটামুটি আশ্বস্ত সিবিআই আধিকারিকরা। খুব শীঘ্রই তাঁকে সিবিআই ‘জালে’ তুলতে পারে বলে সূত্রের খবর।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.