খবরঅনলাইন ডেস্ক: কোভিডবিধি মেনেই এ বারও দুর্গাপুজো হবে। তবে পুজোয় মণ্ডপে গিয়ে ঠাকুর দেখা যাবে না কি আগের বারের মতোই ব্যবস্থা হবে, সেই নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে ভবানীপুরের উপনির্বাচনের পর। মঙ্গলবার পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে বৈঠকে এমনই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা এ দিন বলেন, ‘‘সরকার পদক্ষেপ করছে। নিশ্চিন্তে পুজো করুন। তবে মাস্ক পরতেই হবে। যত বেশি মাস্ক ব্যবহার করতে পারবেন, তত বেশি সচেতনতা।’’ একই সঙ্গে মমতা বলেন, ‘‘মণ্ডপের মধ্যে মাস্ক বিলির ব্যবস্থা করতে হবে। ক্লাব চত্বর স্যানিটাইজ করতে হবে।”

গত বছর কোভিডের দাপট অনেক বেশি ছিল বলে কার্নিভাল হয়নি। এ বছর সেই তুলনায় কোভিডের দাপট কম থাকলেও কার্নিভাল হবে কি না, সেই নিয়ে কিছু খোলসা করেননি মুখ্যমন্ত্রী। তবে তিনি জানান যে ১৫ থেকে ১৮ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া যাবে।

ক্লাবগুলিকে ৫০ হাজার টাকা

এ দিন নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামের বৈঠকে হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী-সহ প্রশাসনিক কর্তারা। উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুলিশের কর্তারাও।

আগের বছরের মতো এ বারও পুজোর ক্লাবগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলা জানান মুখ্যসচিব। পাশাপাশি, বিদ্যুতের বিলে ৫০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন। মকুব করা হয়েছে পুজোর লাইসেন্স ফি-ও। সেই সঙ্গে দ্বিবেদী বলেন, “রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। তবু পুজো কমিটিগুলিকে কোভিড বিধি মানতেই হবে। বিধি মেনেই হবে পুজো।”

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, গত বারের মতো এ বছরও পুজোর অনুমতি চাওয়ার জন্য সিঙ্গল উইন্ডো পরিষেবা চালু থাকছে। যার সুবিধা পাবে পুজো কমিটি।

আরও পড়তে পারেন

২৯ মাইলে ফের ধস, কালিম্পং-সিকিমগামী যান চলাচল ব্যহত

কাবুলে পাকিস্তান-বিরোধী বিক্ষোভে মহিলারা, থামাতে গুলি চালাল তালিবান

‘আইন সবার জন্য সমান’ বলেছিলেন ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী, দু’দিন পরেই গ্রেফতার করা হল তাঁর বাবাকে

শুভেন্দু অধিকারীর রক্ষাকবচ মামলায় নয়া মোড়! বিরোধিতায় ডিভিশন বেঞ্চে রাজ্য

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন