খবরঅনলাইন ডেস্ক: দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়াতেই মহাসপ্তমী পালন করবে কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলি। শুক্রবার দুপুরে সুন্দরবন দিয়ে স্থলভূমিতে ঢুকবে অতি গভীর নিম্নচাপ। এর প্রভাবে প্রবল বর্ষণের পাশাপাশি ঝোড়ো হাওয়ারও সতর্কতা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার মধ্য বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয় নিম্নচাপটি। এর পর থেকে ক্রমশ শক্তি বাড়াতে শুরু করে সে। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর তাদের সর্বশেষ বুলেটিনে জানিয়েছে, বর্তমানে নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে সাগরদ্বীপ থেকে ৩২০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছে।

Loading videos...

আগামী ২৪ ঘণ্টায় সেটা অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। সপ্তমীর দুপুরে সুন্দরবনের মধ্য দিয়ে স্থলভূমি অতিক্রম করতে পারে বলে জানানো হয়েছে। অর্থাৎ, গত ২০ মে যে জায়গা দিয়ে ঘূর্ণিঝড় উম্পুন স্থলভূমিতে ঢুকেছিল, এই অতি গভীর নিম্নচাপটি ঠিক সেই পথই অনুসরণ করতে পারে।

যে পথে স্থলভূমিতে ঢুকতে পারে এই অতি গভীর নিম্নচাপ। ছবি সৌজন্য: আইএমডি

এই নিম্নচাপের প্রভাবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দফায় দফায় ঝোড়ো হাওয়া বইছে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে। তবে উপকূলবর্তী অঞ্চলে জোর বৃষ্টি হচ্ছে দফায় দফায়। কলকাতায় এখনও ভারী বর্ষণ শুরু না হলেও, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা অথবা রাত থেকে বৃষ্টির দাপট বাড়তে পারে।

এই নিম্নচাপটির প্রভাবে, শুক্রবার অর্থাৎ সপ্তমীতে পূর্ব মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগণা এবং কলকাতায় অতি ভারী বৃষ্টিও হতে পারে। উপকূলবর্তী অঞ্চলে হাওয়ার সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার হতে পারে। সমুদ্র উত্তাল হতে পারে। তবে সব থেকে বেশি প্রভাব পড়বে দুই ২৪ পরগণার উপকূলবর্তী অঞ্চলে। সেই কারণেই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

কলকাতায় জোর বৃষ্টির সঙ্গে ৩৫ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া থাকবে। শহরের কিছু কিছু এলাকা জলমগ্নও হয়ে পড়তে পারে। ফলে মহাসপ্তমীর আনন্দ যে অনেকটাই মাটি হয়ে যাবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.