BJP
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: জোর কদমে চলছে বিজেপির রথযাত্রার প্রস্তুতি। আগামী ২০১৯ লোকসভা ভোটের আগে দলীয় প্রচারের মাধ্যম হিসাবে ব্যবহৃত হবে এই রথযাত্রা। ফলে কোনো রকম ভাবেই যাতে এই কর্মসূচিতে ফাঁকফোঁকর না থেকে যায়, সে দিকে রাখা হচ্ছে কড়া দৃষ্টি। যে কারণে দলের বঙ্গ-ব্রিগেডকে এ ব্যাপারে তালিম দিতে উত্তরপ্রদেশ থেকে নিয়ে আসা হয়েছে দুই অভিজ্ঞতা সম্পন্ন তুখোড় নেতাকে।

রাজ্য বিজেপি প্রথমে স্থির করেছিল, আগামী ৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে বাংলার রথযাত্রা। কিন্তু দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের উপস্থিতি নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হয়। আগামী নভেম্বর-ডিসেম্বর জুড়ে রয়েছে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোট। ফলে অমিত প্রচারের কাজে চূড়ান্ত ব্যস্ত থাকবেন। তাঁর কর্মসূচিগুলি খতিয়ে দেখেই দিন পরিবর্তন হয় রথযাত্রার। স্থির হয়, আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকেই শুরু হবে রথযাত্রা।

বিজেপি সূত্রে খবর, রাজ্যের তিনটি জায়গা থেকে তিনটি বড়ো রথ বের করা হবে। সেগুলি হল তারাপীঠ (৫ ডিসেম্বর), কোচবিহার (৭ ডিসেম্বর) এবং গঙ্গাসাগর (৯ ডিসেম্বর)। তিনটি রথযাত্রাতেই অংশ নেবেন বিজেপি সভাপতি। এ ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ১৫ হাজার রথ বের করা হবে। সেগুলি অপেক্ষাকৃত ছোটো। কিন্তু সংগঠনের সমস্ত স্তরের, সমস্ত স্থানের কর্মী-সমর্থকদের উৎসাহ বাড়াতে ওই ছোটো রথগুলি চালানো হবে। এই সিদ্ধান্তই গৃহীত হয়েছে উত্তরপ্রদেশের গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে আয়োজিত রথযাত্রার নেপথ্য কারিগর বিজেপি নেতা তেজ বাহাদুর সিং। তিনি ইতিমধ্যেই কলকাতায় হাজির হয়েছেন। তাঁর আগেই সহকারী কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন।

তাঁদের অভিজ্ঞতা থেকেই সমৃদ্ধ হচ্ছেন বিজেপির বঙ্গ-নেতৃত্ব। শুধুমাত্র লোকসভা ভিত্তিক নয়, বুথস্তর পর্যন্ত রথযাত্রা কর্মসূচি নিয়ে হাতেনাতে সুফল পেয়েছিল উত্তরপ্রদেশ বিজেপি। তারা দখল করেছিল সে রাজ্যের শাসন ক্ষমতা। ফলে বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেসের শক্ত ভিত নড়াতে হলে ওই ফরমুলাতেই এগোতে হবে বলে বাংলার নেতৃত্বকে বুঝিয়েছেন তাঁরা। সেই মতোই চলছে আয়োজন। জানা গিয়েছে, বিধানসভাওয়াড়ি ভাবে কমপক্ষে ৬০টি করে ছোটো রথ বের করবে বিজেপি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here