কলকাতা : আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই বাতিল হচ্ছে পুরোনো রেশন কার্ড। তাই পুরোনো কার্ড দেখিয়ে চাল ও গম তুলতে পারবেন না রেশন গ্রাহকরা। খাদ্য দফতর একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই খবর জানিয়েছে। যে সমস্ত গ্রাহক নতুন রেশন কার্ড পাননি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে তাঁদেরও পুরোনো কার্ডে চাল ও গম দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু ইতিমধ্যেই রাজ্যের সমস্ত জেলায় নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড বিলির কাজ শুরু হয়েছে জোর কদমে। জেলায় গ্রাম পঞ্চায়েত ও শহরে পুরসভার মাধ্যমে নতুন কার্ড বিলি করা হচ্ছে। জানুয়ারি মাসের মধ্যেই রেশনের গ্রাহকদের হাতে এই নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড পৌঁছে যাবে বলে জানিয়েছে খাদ্য দফতর। নতুন কার্ড ও পুরোনো কার্ড এক সঙ্গে চালু থাকলে রেশন ডিলাররা চাল ও গম দিতে সমস্যায় পড়বেন। তা ছাড়া গণবন্টন ব্যবস্থায় সমস্যা হবে। তাই এ বিষয়ে খাদ্য দফতরের তরফ থেকে সমস্ত জেলার জেলাশাসকদের লিখিত নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে।  

খাদ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় রয়েছে ৬ কোটি ১ লক্ষ রেশন গ্রাহক। কেন্দ্রীয় খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পে এই সমস্ত গ্রাহক ২ টাকা কেজি দরে চাল পান। রাজ্যের আরও দু’টি প্রকল্পে প্রায় ২ কোটি আলাদা রেশন গ্রাহক আছেন। যাঁরা খাদ্যসাথী প্রকল্পে ২ টাকা কেজি দরে চালগম পান। এ ছাড়া বিপিএল ও এপিএল তালিকায় চাল, গম ও চিনি পান রাজ্যের বেশ কিছু গ্রাহক। কিন্তু এই সমস্ত গ্রাহককে এ বার নতুন ডিজিটাল কার্ড দেখিয়েই চাল, গম, চিনি তুলতে হবে।

এ বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “এই ডিজিটাল রেশন কার্ড তৈরি হওয়ায় একাধিক জেলা থেকে লক্ষ লক্ষ ভুয়ো রেশন কার্ড বাতিল করা হয়েছে। গণবণ্টন ব্যবস্থায় ডিজিটাল রেশন কার্ড একটি অন্যতম ভালো উদ্যোগ। যে হেতু রাজ্যের সমস্ত মানুষের হাতে নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড ছিল না, সে হেত পুরোনো কার্ডের মাধ্যমেই রেশনিং ব্যবস্থা চালু ছিল। ১৬ জানুয়ারির মধ্যে সবাই নতুন কার্ড হাতে পাবেন। তাই পুরোনো রেশন কার্ডের মাধ্যমে চাল ও গম দেওয়া বন্ধ করা হচ্ছে”।     

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here