তেলঙ্গনা, মহারাষ্ট্রের মতোই এলন মাস্কের টেসলাকে নিয়ে টানাটানি বাংলার মন্ত্রীর! কটাক্ষ বিজেপি-র

0

কলকাতা: গাড়ি নির্মাতা সংস্থা টেসলার ভারতে আসা বেশ চ্যালেঞ্জের। এমনটাই জানিয়েছিলেন সংস্থার সিইও মার্কিন ধনকুবের এলন মাস্ক। বলেছিলেন, এ ব্যাপারে ভারত সরকারের সঙ্গে টানাপোড়েন চলছে। তার পরই একে একে তেলঙ্গনা, মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে বিনিয়োগে স্বাগত জানানো হয় তাঁকে। একই রকম ভাবে মাস্ককে বাংলায় বিনিয়োগে স্বাগত জানান রাজ্যের সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী গোলাম রব্বানি। যা নিয়ে কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য।

মাস্কের টুইট রিটুইট করে রব্বানি লেখেন, “বাংলায় আসুন। এখানে শিল্পের সবেচেয়ে ভালো পরিকাঠামো আছে। তা ছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহযোগিতারও কোনো অভাব হবে না। বাংলা মানেই বাণিজ্য”।

রব্বানিকে কটাক্ষ করে অমিত মালব্য লেখেন, “বাংলায় মাস্কের যাত্রা শুরু হবে ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে মমতার রেকর্ড দিয়ে? শেষ হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সিঙ্গুর আন্দোলন দিয়ে? এটা কি হাস্যকর নয়”!

এর আগে টেসলাকে তেলঙ্গনায় কারখানা তৈরিতে স্বাগত জানিয়ে টুইট করেছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী কেটি রামারাও। চ্যালেঞ্জের মধ্যেই এক সঙ্গে কাজ করার কথা উল্লেখ করেছিলেন তিনি। তাঁর পর একই ধরনের বার্তা দেন মহারাষ্ট্রের জলসম্পদমন্ত্রী জয়ন্ত পাতিল। এনসিপি নেতা বলেন, “আপনারা (টেসলা) মহারাষ্ট্রে কারখানা তৈরি করুন”।

সম্প্রতি জানা যায়, মার্সিডিজ বেঞ্চ জানায়, শীঘ্রই ভারতের বাজারে মিলবে তাদের ইলেকট্রিক গাড়ি সিডান। এর পরই এক নেটিজেন প্রশ্ন ছুড়ে দেন এলন মাস্ককে। বলেন, ভারতে কেন এখনও এল না টেসলা? জবাবে মাস্ক বলেন, মোদী সরকারের বহু চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও তাঁরা এখনও ভারতের বাজারে আসার চেষ্টা করেছেন।

উল্লেখ্য, গত জুলাইয়ে এলন মাস্ক টুইটারে লেখেন, টেসলা ভারতে প্রবেশ করতে চায়, কিন্তু এখানে আমদানি শুল্ক বিশ্বের যে কোনো বড়ো দেশের তুলনায় সর্বোচ্চ।

আরও পড়তে পারেন:

জীবন বাঁচিয়েছে, জীবিকা রক্ষা করেছে টিকাকরণ কর্মসূচি, বর্ষপূর্তিতে অভিবাদন প্রধানমন্ত্রীর

বাড়তি আয়ের সুযোগ! ফিক্সড ডিপোজিটে সুদের হার বাড়াল এসবিআই

অখিলেশ যাদবের পার্টিতে নাম লেখালেন যোগী সরকারের আরও এক সদ্য প্রাক্তন মন্ত্রী

রেললাইনের সংযোগস্থলে ফাটল, অল্পের জন্য বড়োসড়ো দুর্ঘটনা এড়াল দত্তপুকুর লোকাল

কোভিড মহামারি চিরকাল থাকতে পারে না, শীঘ্রই শেষ হবে: আমেরিকার ভাইরোলজিস্ট

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন