সরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গি চিকিৎসা নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করে সাসপেন্ড প্রবীণ চিকিৎসক, বিতর্ক

0

কলকাতা: সাসপেন্ড হলেন বারাসত জেলা হাসপাতালের প্রবীণ চিকিৎসক ডা‌ঃ অরুণাচল দত্ত চৌধুরী। অরুণাচলবাবু একজন পরিচিত কবিও। গত ৮ অক্টোবর, অরুণাচলবাবু তাঁর ফেসবুকে বারাসত জেলা হাসপাতালের ডেঙ্গি পরিস্থিতির ধাক্কায় বিপুল সংখ্যক রোগীর ভর্তি হওয়া এবং সেই শ’পাঁচেক রোগীর চিকিৎসার জন্য মাত্র ১ জন মেডিক্যাল অফিসার এবং সামান্য সংখ্যক অন্যান্য কর্মীর উপস্থিতি নিয়ে একটি দীর্ঘ পোস্ট করেন। সেই পোস্টে তাঁর দেওয়া তথ্যের প্রমাণ হিসেবে হাসপাতালের বোর্ডের ছবিও দাখিল করেন অরুণাচলবাবু। তাতে ব্যাপক বিতর্কের জন্ম হয়। দেখে নিন সেই পোস্টটি।

এই পোস্টের প্রতিক্রিয়ায় সক্রিয় হয় রাজ্য সরকার। গত ১ নভেম্বর নির্দেশ জারি করে ‘হাসপাতাল পরিষেবা সংক্রান্ত বিষয়ে ব্যক্তিগত মত সামাজিক মাধ্যমে ব্যক্ত করার জন্য’ স্বাস্থ্য দফতর ডা‌ঃ অরুণাচল দত্ত চৌধুরীকে সাসপেন্ড করে। ওই নির্দেশিকার বিষয়ে স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে কেউ মুখ না খুললেও সরব হয়েছেন রাজ্যের চিকিৎসকদের একাংশ। অ্যাসোসিয়েশন অফ হেলথ সার্ভিস ডক্টরস এবং ওয়েস্টবেঙ্গল ডক্টরস ফোরামের তরফ থেকে বিবৃতি দিয়ে এই ঘটনার নিন্দা করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে নেওয়ার আবেদনও জানানো হয়েছে।

তবে অনেকেরই মত, সরকারি কর্মচারীরা কোনো মতেই তাঁর দফতর সংক্রান্ত বিষয়ে প্রকাশ্য ব্যক্তিগত মত বলতে পারেন না। তা আইনবিরুদ্ধ। অন্য পক্ষের যুক্তি, ওই আইন সংবাদমাধ্যমে মুখ খোলার ব্যাপারে প্রযোজ্য, ফেসবুকের মতো সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

আর যাঁর ফেসবুক পোস্ট নিয়ে এত বিতর্ক, সেই অরুণাচলবাবু কী বলছেন? তাঁর সঙ্গে কথা না বলা গেলেও, বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৯ নভেম্বর অরুণাচলবাবু ডেঙ্গি পরিস্থিতি নিয়ে একটি কবিতা লেখেন ফেসবুকে। সেই কবিতাতেও রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেছেন তিনি। পড়ে নিন কবিতাটি:

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here