ওয়েবডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনের পঞ্চম দফায় ভোটগ্রহণ হতে চলেছে উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুরে। ওই কেন্দ্রেরই ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং ইস্তফা দেওয়া উপনির্বাচন আগামী ১৯ মে। স্বাভাবিক ভাবে লোকসভা ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে নির্বাচনী প্রচার বন্ধ হলেও বিধানসভা উপনির্বাচনের ক্ষেত্রে তা কী ভাবে লাগু হবে, সে বিষয়েই ফাঁপরে পড়েছে নির্বাচন কমিশন।

ভাটপাড়া উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী করেছে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রকে। অন্য দিকে প্রাক্তন বিধায়ক অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগ গিয়ে ব্যারাকপুর লোকসভা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও তাঁর ছেলে পবন সিংকেই ভাটপাড়ায় প্রার্থী করেছে বিজেপি। প্রচারের ধারে-ভারে উভয় পক্ষই পাল্লা দিচ্ছে একে-অপরকে। এহেন পরিস্থিতিতে লোকসভা নির্বাচনের (আগামী সোমবার) ৪৮ ঘণ্টা আগে ভোটপ্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি হলে উপনির্বাচনের প্রার্থীদের ক্ষেত্রে তা কী ভাবে প্রযোজ্য হবে, সে বিষয়ে এখনও কোনো সদুত্তর মেলেনি।

জানা গিয়েছে, এ ব্যাপারে মদনবাবু আগেভাগেই সুর চড়িয়ে রেখেছেন। কমিশন নিয়ম মেনেই উপনির্বাচনের প্রার্থীদের প্রচারের সুযোগ দিলেও লোকসভার জন্য ৪ তারিখ বিকেল থেকে ৬ তারিখ সন্ধে পর্যন্ত প্রচার বন্ধ থাকাই নিয়ম। কিন্তু এ ক্ষেত্রে উপনির্বাচনের প্রার্থীরা সেই নিয়মের গেরোয় পড়ে প্রচার থেকে বঞ্চিত হবেন কি না, সেই প্রশ্নেরই উত্তরের খোঁজ চলছে।

প্রসঙ্গত গত মঙ্গলবার রাতে তৃণমূল প্রার্থীর সভাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ভাটপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কাঁকিনাড়া। ব্যাপক সংঘর্ষ বাঁধে বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে। চলে বোমাবাজি, আগুন লাগানো। ঘটনায় আহত হয়েছেন বেশ কয়েক জন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন