Moonmoon Sen
মুনমুন সেন

ওয়েবডেস্ক: রবিবাসরীয় প্রচারে বেরিয়ে তারকা প্রার্থীদের হয়ে জোরালো সওয়াল করলেন আসানসোল কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন সেন।

nusrat jahan and mimi chakraborty
নুসরত জাহান এবং মিমি চক্রবর্তী। ফাইল ছবি

তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই রাজনীতিতে তারকাদের আগমন নিয়ে বিস্তর জল্পনা চলছে। তৃণমূলের মতোই বিজেপিও বিভিন্ন কেন্দ্রে সেলেব প্রার্থীকে দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করানোর চেষ্টা জারি রেখেছে বলে দলীয় সূত্রে খবর। তবে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই রাজনীতিতে নবাগত মিমি চক্রবর্তী অথবা নুসরাত জাহানের মতো টলি-অভিনেত্রীদের নিয়ে বিতর্ক থামার নয়। রবিবার নিজের ভোট প্রচারে বেরিয়ে সে প্রসঙ্গেই মুখ খুললেন আসানসোল কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন।

গত ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়া কেন্দ্রের ন’বারের জয়ী সাংসদ বাসুদেব আচারিয়াকে হারিয়ে সংসদে যান মুনমুন। এ বার অবশ্য তাঁর লড়াইয়ের কেন্দ্র বদল করা হয়েছে তৃণমূলের তরফে। তিনি এ বারের লোকসভায় লড়ছেন আসানসোল থেকে। ওই কেন্দ্রের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কেই সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে ধরে নিয়ে প্রচারে এগোচ্ছেন মুনমুন।

এ দিন মুনমুন নিজের কেন্দ্রে প্রচারে বের হন দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়েই। রিকশা করে পথে বেরিয়ে নজর কেড়ে নেন পথচলতি মানুষের। পরনে তাঁর সবুজ শাড়ি, কল্যাণেশ্বরীর আশীর্বাদ নিয়েই নেমে পড়লেন রাস্তায়। জানান, “রাজনীতিতে এখনকার প্রজন্মের শিল্পীরাও আসছেন। সুন্দর সুন্দর বুদ্ধিমতী মেয়েরা আসছেন। তাঁরা সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করবেন। এতে সমালোচনার কী আছে”।

[ আরও পড়ুন: মিমি-নুসরতের বিরুদ্ধে বিজেপির প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব, ভেবে দেখছেন টলিউডের ২ অভিনেত্রী ]

একই ভাবে নিজের কেন্দ্রে জয়ের ব্যাপারে তিনি বলেন, “আমরাই জিতব। আমরা জিততে এসেছি। ওরা (তাঁর বিরোধীরা দলের প্রার্থীরা) হারতে এসেছে”।

অন্য দিকে প্রতিদ্বন্দ্বী বাবুল সুপ্রিয়কে তিনি বলেন, “বাবুলকে নিয়ে কোনও কথা বলব না, এখানে আমি ওঁর কথা বলতে আসেনি। আমি শুধু ওর বাবাকে চিনতাম।”

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here