Mukul Roy

কলকাতা: বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের নেতৃত্ব একটি প্রতিনিধি দল রাজ্য নির্বাচন আধিকারিকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করল গত শুক্রবার। ওই প্রতিনিধি দলের মূল বক্তব্যই ছিল, গত ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস যে ভাবে সন্ত্রাস ছড়িয়েছিল, এ বারের ভোটে তার পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে। তা রোধ করতে এ বারের ভোটে পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রয়োজন

শুক্রবার মুকুলবাবু বলেন, গত ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে সারা রাজ্য জুড়ে সন্ত্রাস চলেছে। মৃত্যুর পাশাপাশি অসংখ্য মানুষের ঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে।
২০১৩ নির্বাচনের পর মুকুলবাবু বলেছিলেন, দ্বিতীয় দফার পঞ্চায়েত ভোটে বলা হচ্ছে তিন জন মারা গিয়েছেন। এর মধ্যে মঙ্গলকোটে শহিদ হয়েছেন এক তৃণমূল সমর্থক। বাকি দু’জনের মৃত্যু অন্য কারণে হলেও নির্বাচন কমিশন ভোটজনিত কারণ বলে চালাতে চাইছে।

শুক্রবার মুকুলবাবু বলেন, ২০১৩-এর নির্বাচনে তৎকালীন রাজ্য নির্বাচন আধিকারিক মীরা পাণ্ডে সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। পঞ্চায়েত ভোটে আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে যা যা করণীয়, সবই করেছিলেন।
২০১৩ নির্বাচনের আগে মুকুলবাবু বলেছিলেন, মীরাদেবী সিপিএমের হয়ে কাজ করছেন। সিপিএমের হয়ে কথা বলার জন্যই তাঁকে ২০০৯ সাল থেকে মেয়াদ বৃদ্ধি করে ওই পদে রাখা হয়েছে।

শুক্রবার মুকুলবাবু বলেন, ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে সারা রাজ্য জুড়ে ব্যাপক সন্ত্রাস চলেছে। এ বার তা প্রতিহত করতে পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রয়োজন।
২০১৩ নির্বাচনের আগে মুকুলবাবু বলেছিলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে আবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর কী প্রয়োজন? ২০০৮-এর নির্বাচনেও তৃণমূল (তখন মুকুলবাবুর দল) পঞ্চায়েত ভোটের আগে সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম হলেও কেন্দ্রীয় বাহিনী আসেনি। ভোটের পর বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন