চতুর্থ দফার ভোটে আরও বাড়ল কেন্দ্রীয় বাহিনী

0
election
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: তৃতীয় দফার ভোটের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে পরের দফায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করতে চলেছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার ভোটগ্রহণ শেষে কমিশন জানায়, চতুর্থ দফায় ৯৮ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

আগামী ২৯ এপ্রিল আটটি কেন্দ্রে হবে চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ। কেন্দ্রগুলির মধ্যে রয়েছে বহরমপুর, কৃষ্ণনগর, রানাঘাট, বর্ধমান পূর্ব, বর্ধমান দুর্গাপুর, আসানসোল, বোলপুর এবং বীরভূম। এই কেন্দ্রগুলির ৯৮ শতাংশ বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে বলে জানায় কমিশন।

একই সঙ্গে এ দিন তৃতীয় দফার পাঁচটি আসনে ভোটপ্রাপ্তির হার জানানো হয়। কমিশন জানায়, মুর্শিদাবাদে ৮১.৪১%, জঙ্গিপুর ৭৮.৫৮%, মালদহ দক্ষিণ ৭৭.৪৫%, মালদহ উত্তর ৭৬.৪৩% এবং বালুরঘাটে ৮০.৯৮% ভোট পড়েছে।

আগের দু’টি ভোটগ্রহণের অভিজ্ঞতা থেকে আগামী দফার ভোটে সাধারণ মানুষকে সুষ্ঠু এবং অবাধ মতদানের সুযোগ করে দিতে যথাযোগ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল কমিশন। কিন্তু তার পরেও একাধিক জায়গায় সংঘর্ষের ঘটনার কথা জানা যায়। মুর্শিদাবাদে ভগবানগোলার রানিতলা বালিগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৮৮ নম্বর বুথের লাইনে দাঁড়িয়ে এ দিন প্রাণ গিয়েছে এক কংগ্রেস কর্মীর। মৃতের নাম আবদুল কালাম টিয়ারুল শেখ। 

তৃতীয় দফার আগেই কমিশন জানায়, তৃতীয় দফার ৯২ শতাংশ বুথে থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাকি আট শতাংশ বুথে থাকবে রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী। তবে কোনো বুথেই লাঠিধারী পুলিশ থাকবে না। বুথে আধাসেনা এবং পুলিশ এক সঙ্গে থাকবে না বলেও স্পষ্টত জানিয়ে দিয়েছিল কমিশন। কিন্তু তার পরেও বেশ কয়েকটি জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী অথবা রাজ্য পুলিশের নিষ্কিয়তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

প্রসঙ্গত, প্রথম দফায় রাজ্যের দু’টি কেন্দ্রে ৮৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল আর দ্বিতীয় পর্যায়ের ভোটে ছিল মোট ১৯৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। তৃতীয় দফায় সব বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখার লক্ষ্যে ৩২৪ কোম্পানি আধাসেনা নিয়ে আসা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে৷

নির্বাচন কমিশন সূত্রে আগেই জানা গিয়েছে, রাজ্যের বাকি লোকসভাগুলির ভোটগ্রহণে প্রায় ৪১ হাজার কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন