election
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফার লোকসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হতে চলেছে রাজ্যের পাঁচটি কেন্দ্রে। শনিবার নির্বাচন কমিশন জানায়, আগের দু’টি ভোটগ্রহণের অভিজ্ঞতা থেকে আগামী দফার ভোটে সাধারণ মানুষকে সুষ্ঠু এবং অবাধ মতদানের সুযোগ করে দিতে যথাযোগ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

এ দিন কমিশন জানায়, তৃতীয় দফার ৯২ শতাংশ বুথে থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাকি আট শতাংশ বুথে থাকবে রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী। তবে কোনো বুথেই লাঠিধারী পুলিশ থাকবে না। বুথে আধাসেনা এবং পুলিশ এক সঙ্গে থাকবে না বলেও স্পষ্টত জানিয়ে দিল কমিশন। ভোট কর্মীরা নিজেদের নিরাপত্তার দাবিতে যে ভাবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন, কমিশনের সিদ্ধান্তে তারও একটা প্রভাব রয়েছে বলে ধারণা করছে ওয়াকিবহাল মহল।

ফলে সব মিলিয়ে প্রথম এবং দ্বিতীয় দফার তুলনায় তৃতীয় দফায় রাজ্যের পাঁচটি আসনের ভোটগ্রহণে অনেকটাই বাড়ল কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা। আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় রাজ্যের বালুরঘাট, মালদহ উত্তর, মালদহ দক্ষিণ, জঙ্গিপুর এবং মুর্শিদাবাদের ভোটগ্রহণে প্রতিটি বুথেই থাকবে হয় আধাসেনা, নচেৎ রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী।

প্রথম দফায় রাজ্যের দু’টি কেন্দ্রে ৮৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল আর দ্বিতীয় পর্যায়ের ভোটে ছিল মোট ১৯৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। গত বৃহস্পতিবার দার্জিলিং জলপাইগুড়ি এবং রায়গঞ্জে ভোটের নিরাপত্তার দায়িত্ব সামলেছেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা। নির্বাচন কমিশন সূত্রে বলা হয়েছে, এত সংখ্যক বাহিনী আনার একটাই কারণ যাতে অন্তত ৮৫ থেকে ৯০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা যায়। তার পরেও দার্জিলিংয়ের চোপড়া এবং রায়গঞ্জের কয়েকটি জায়গায় বিক্ষিপ্ত রাজনৈতিক সংঘর্ষের খবর পাওয়া গিয়েছে। যে কারণে নির্বাচনী নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরও জোরদার করতে চাইছে কমিশন।

সূত্রের খবর, তৃতীয় দফায় নিরাপত্তা নিয়ে বিশেষ বৈঠক করেছেন নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে ও বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক৷ তাঁদের ওই বৈঠকেই স্থির হয়েছে, তৃতীয় দফার ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়ানো হবে। সিন্ধান্ত অনুযায়ী, তৃতীয় দফায় সব বুথেই থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ এর জন্যই ৩২৪ কোম্পানি আধাসেনা নিয়ে আসা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে৷

নির্বাচন কমিশন সূত্রে আগেই জানা গিয়েছে, রাজ্যের বাকি লোকসভাগুলির ভোটগ্রহণে প্রায় ৪১ হাজার কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here